Current Bangladesh Time
মঙ্গলবার জানুয়ারী ৩১, ২০২৩ ৪:০৩ অপরাহ্ন
Barisal News
Latest News
প্রচ্ছদ » কলাপাড়া, পটুয়াখালী » নিখোঁজের ২৭ বছর পরে বাড়িতে ফিরল জেলে মধু, প্রয়োজন উন্নত চিকিৎসা
১৯ মে ২০১২ শনিবার ৮:১৭:১৮ অপরাহ্ন
Print this E-mail this

নিখোঁজের ২৭ বছর পরে বাড়িতে ফিরল জেলে মধু, প্রয়োজন উন্নত চিকিৎসা


জেলে মধু

নিখোঁজের ২৭ বছর পরে বাড়িতে ফিরেছে জেলে মধু, বাড়িতে উৎসুক মানুষের ভীড় (ছবিঃ আমাদের বরিশাল ডটকম)

কলাপাড়া, ১৯ মে (মেজবাহউদ্দিন মাননু/আমাদের বরিশাল ডটকম): বঙ্গোপসাগরে মাছ শিকারে গিয়ে ডাকাতের কবলে পড়ে নিখোঁজ হওয়ার দীর্ঘ ২৭ বছর পরে নিজ বাড়ি  চালিতাবুনিয়া গ্রামে ফিরল মোয়াজ্জেম হোসেন মধু (৪৮)। বর্তমানে তিনি মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেছেন। মোয়াজ্জেমের বাড়ি ফেরার খবরে গোটা চম্পাপুর ইউনিয়নজুড়ে বিরাজ করছে চাঞ্চল্য। তাকে দেখতে শত শত মানুষ ভিড় করছে তার বাড়িতে।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার চম্পাপুর ইউনিয়নের চালিতাবুনিয়া গ্রামের মৃত আব্দুর রশিদ হাওলাদারের ছেলে মোয়াজ্জেম হোসেন মধু ১৯৮৫ সালের কোন এক সময় সাগরে মাছ শিকারে গিয়ে জলদস্যুদের কবলে পরে ১১ জেলেসহ নিখোঁজ হন। বহুদিন খোঁজার পরে তার পরিবারের লোকজনও হাল ছেড়ে দেয়। কিন্তু ২৭ বছর পর পিরোজপুর জেলা শহরে জেলে মধু অপ্রকৃতস্থ অবস্থায় ঘুরতে থাকে। ভাগ্রক্রমে তারই শ্বশুরবাড়ি ওই এলাকায় থাকায় শ্বশুর জয়নাল গাজী তাকে চিনতে পারে। তিনি মধুকে নিয়ে যান তার বাড়িতে। পরে মধুর নিজবাড়িতে খবর দেয়।

৭ মে সোমবার সকালে তার ছোট ভাই জাকির হোসেন হাওলাদার মধুকে বাড়িতে নিয়ে আসেন। মধুকে দেখার জন্য তার আত্মীয় সজনেরা ভিড় করলেও মধু কাউকে চিনতে পারছে না। অনেকটা বাকপ্রতিবন্ধীর মতো আচরণ তার। তবে সে তার মা, বাবা, স্ত্রী-সন্তানদের দেখতে চায় বলে স্থানীয়রা জানান। মধুর শরীরে একাধিক জায়গায় ক্ষতের চিহ্ন রয়েছে। দরিদ্র ওই জেলে পরিবারের পক্ষে তাকে চিকিৎসা করানো এখন অনিশ্চিত হয়ে পরেছে।

মধুর ছোট ভাই জাকির হোসেন হাওলাদার জানান, দীর্ঘ ২৭ বছর আগে সাগরে মাছ ধরতে গিয়ে জলদস্যুরা ১২ জন জেলে সহ ট্রলারটি অপহরন করে নিয়ে যায়। ওই সময় ভাগ্যক্রমে জলদস্যুদের কবল থেকে একজন প্রাণে রক্ষা পায়। বাকী ১১ জেলের সঙ্গে মধুও ছিল। মধুর নিখোঁজের পরে তার স্ত্রী অন্যত্র গিয়ে বিয়ে করেন। ছেলে-মেয়ে ইমাম হোসেন (৩২) ও কল্পনা বেগম (২৬) বিয়ে করে ঘর সংসার করছে। বর্তমানে মেয়ের কাছে রয়েছে মধু।

কল্পনা জানান, বাবা নিখোঁজের সময় সে ছোট ছিল। বাবাকে ঠিকই পেয়েছে। কিন্তু কিভাবে চিকিৎসা করাবে তা ভেবে এই দরিদ্র পরিবারটি এখন উদ্বিগ্ন রয়েছে।

চম্পাপুর ইউনিয়নের প্রশাসক উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার বদিউজ্জামান বন্টিন জানান, খবর শুনে তিনিও ওই বাড়িতে গিয়েছিলেন। চিকিৎিসার জন্য কিছু সহায়তা করেছেন। তবে মধুর প্রয়োজন উন্নত চিকিৎসা।


(আমাদের বরিশাল ডটকম/কলাপাড়া/মেমা/তাপা)

সম্পাদনা: সেন্ট্রাল ডেস্ক

শেয়ার করতে ক্লিক করুন:

আমাদের বরিশাল ডটকম -এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
(মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। amaderbarisal.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের মিল আছেই এমন হবার কোনো কারণ নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে amaderbarisal.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নেবে না।)
হাসপাতাল-ক্লিনিকের সাইনবোর্ড থাকতে হবে
বরিশালে বিএনপির গায়েবানা জানাজা অনুষ্ঠিত
গৌরনদীতে দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে আহত ২৫
১৫ পয়সা কমলো লঞ্চের ভাড়া
বরিশাল সিটি করপোরেশনের বাজেট ঘোষণা
Recent: Mayor Hiron Barisal
Recent: Barisal B M College
Recent: Tender Terror
Kuakata News

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
আমাদের বরিশাল ২০০৬-২০২০

প্রকাশক ও নির্বাহী সম্পাদক: মোয়াজ্জেম হোসেন চুন্নু, সম্পাদক: রাহাত খান
৪৬১ আগরপুর রোড (নীচ তলা), বরিশাল-৮২০০।
ফোন : ০৪৩১-৬৪৫৪৪, ই-মেইল: hello@amaderbarisal.com