Current Bangladesh Time
শুক্রবার মার্চ ২২, ২০১৯ ১২:১০ অপরাহ্ন
Barisal News
Latest News
প্রচ্ছদ » লাইফস্টাইল, সংবাদ শিরোনাম » গরুর মাংশের ১৯ রকম পদ
২ সেপ্টেম্বর ২০১৭ শনিবার ১২:০৪:৫৮ পূর্বাহ্ন
Print this E-mail this

গরুর মাংশের ১৯ রকম পদ
লাইফস্টাইল ডেস্ক


গরুর মাংশের ১৯ রকম পদভোজন রসিকদের জন্য কোরবানির ঈদ মানেই ভুরি ভোজের মহোৎসব। ঈদ উপলক্ষে বানানো নানা পদের বাহারি খাবার –দাবার দেখে অনেকেই লোভ সামলাতে পারেন না।

কিন্তু আপনি যতই রসনা বিলাসী হোন না কেন, খাবার খেতে হবে পরিমিত। তবে রান্নাটাও হওয়া চায় যুৎসই। গরুর মাংসের ১৯টি সুস্বাদু পদ সম্পর্কে জেনে নিতে পারেন।

গার্লিক বিফ : যারা গরুর মাংস ঝাল করে খেতে পছন্দ করেন তাদের জন্য গার্লিক বিফের তুলনা হয় না। ঈদের দিন ঘরেই পাবেন রেস্তোরার গার্লিক বিফের মজাদার স্বাদ।

প্রয়োজনীয় উপকরণ: গরুর মাংস ১ কেজি, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, হলুদ ও মরিচ গুঁড়া ১ কাপ, আদা ও রসুন বাটা আধা চা চামচ, রসুনের কোয়া ৪/৫টি, ধনে ও জিরা গুঁড়া ১ চা চামচ, টেস্টিং সল্ট সামান্য, তেল আধা কাপ, মাংসের মসলা আধা চা চামচ, টমেটো সস আধা কাপ, টক দই ১ কাপ, গরম মসলা গুঁড়া আধা চা চামচ, লবণ স্বাদ মতো।

প্রস্তুত প্রণালী: মাংস ধুয়ে কেটে নিন। একটি পাত্রে মাংস, হলুদ, মরিচ, টক দই, আদা, রসুন, লবণ, ধনে, জিরা গুঁড়া, টেস্টিং সল্ট ভালো করে মিশিয়ে ২০ মিনিট মেরিনেট করে রাখুন। কড়াইতে তেল গরম করে পেঁয়াজ বাদামী করে ভেজে মাংস দিয়ে নেড়ে কষাতে হবে। কষানো হলে সামান্য পানি দিয়ে নেড়ে ঢেকে রাখতে হবে। মাংস সিদ্ধ হয়ে আসলে টমেটোসস, কাঁচামরিচ ফালি ও রসুনের কোয়া দিয়ে ১০ মিনিট দমে রেখে নামিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন।

গরুর মেজবানি মাংস : কোরবানীর ঈদে খেতে পারেন গরুর মেজবানি মাংস। কিন্তু চাইলে এইে ঈদে আপনিও ঘরে তৈরি করতে পারেন সুস্বাদু ও ঐতিহাসিক গরুর মেজবানি মাংস।

প্রয়োজনীয় উপকরণ: গরুর মাংস ২ কেজি, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ, হলুদ ও মরিচ গুঁড়ো ১ টেবিল চামচ, ধনে ও জিরা গুঁড়া ১ টেবিল চামচ, সরিষার তেল ১ কাপ, মাংসের মসলা ১ চা চামচ, টক দই ১ কাপ, কাঁচামরিচ ১০/১২টি, গোলমরিচ ১ চা চামচ, দারচিনি ও এলাচ ৫/৬টি, জয়ফল ও জয়ত্রী আধা চা চামচ, মেথি গুঁড়া ১ চা চামচ, লবণ স্বাদমতো।

প্রস্তুত প্রণালী: মাংস ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। একটি পাত্রে মাংস, তেল, টক দই, হলুদ, মরিচ, আদা, রসুন, পেঁয়াজ, লবণ ও সব মসলা নিয়ে মেরিনেট করে রাখুন। অর্ধেক পেঁয়াজ তেলে ভেজে বেরেস্তা করে নিন। চুলায় হাঁড়ি বসিয়ে মেরিনেট করা মাংস কষাতে থাকুন। হাঁড়িতে ২ কাপ পরিমাণ পানি দিয়ে আরো কিছুক্ষণ কষাতে হবে। মাংস থেকে পানি ঝরে গেলে মৃদু আঁচে মাংস সিদ্ধ না হওয়া পর্যন্ত রান্না করুন।

মাংসের পানি শুকিয়ে এলে কাঁচামরিচ, ধনে, জিরা গুঁড়া দিয়ে মৃদু আঁচে ১০ মিনিট দমে রেখে নামিয়ে পেঁয়াজ বেরেস্তা দিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন সুস্বাদু গরুর মেজবানি মাংস।

কাটা মসলায় বিফ ভুনা : ঈদের দিন খিচুরী বা পোলাও দিয়ে গরুর মাংস ভুনা খাওয়ার কথা চিন্তা করলেই জিভে পানি এসে যায়। আর এই ভুনা মাংস যদি হয় কাটা মসলার ভুনা তাহলে তো কথাই নেই। ঈদের আনন্দ হয়ে যাবে দ্বিগুণ।

প্রয়োজনীয় উপকরণ: গরুর মাংস ১ কেজি, আদা বাটা ১ টেবিল চাচমচ, রসুন বাটা আধা টেবিল চামচ, জয়ফল ও জয়ত্রী আধা টেবিল চামচ, হলুদ গুঁড়া সামান্য, দারচিনি, এলাচ, তেজপাতা ১/২ টি, শুকনো মরিচ কাটা ১৫/২০টি, পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, টক দই আধা কাপ, লবণ স্বাদমতো, তেল পরিমাণমতো।

প্রস্তুত প্রণালী: টক দই দিয়ে মাংস আধা ঘণ্টা ভালো করে মেরিনেট করে রেখে দিতে হবে। চুলায় তেল গরম হলে মাংস ছেড়ে দিয়ে ভালো করে ভাজতে হবে। ভাজা হলে পেঁয়াজ কুচি ও শুকনো মরিচ দিতে হবে। এবার সব মসলা মাংসে দিয়ে ভালো করে কষাতে হবে। কষানো হলে একটু পানি দিয়ে দমে বসিয়ে রাখতে হবে। মাংসের ওপর তেল ভেসে উঠলে নামিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন কাটা মসলায় বিফ ভুনা।

গরুর কড়াই গোস্ত: কাশ্মীরি পোলাও এর সঙ্গে সব থেকে বেস্ট যে আইটেমটি যায় তাহলো গরুর কড়াই গোস্ত।

প্রয়োজনীয় উপকরণ: গরুর মাংস ১ কেজি, পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, হলুদ ও মরিচ গুঁড়া ১ টেবিল চামচ, রসুন কোয়া ২/৩টি, মাংসের মসলা ১ চা চামচ, দারচিনি ও এলাচ ৩/৪ টুকরো, জয়ফল ও জয়ত্রী বাটা ১ চা চামচ, টক দই ১ কাপ, টমেটো কিউব ১ কাপ, তেজপাতা ২টি, তেল ১ কাপ, লবণ স্বাদমতো।

প্রস্তুত প্রণালী: মাংস ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিয়ে একটি পাত্রে মাংস, টক দই, লবণ ও সব মসলা একসঙ্গে ভালো করে মেখে ২০ মিনিট মেরিনেট করে রাখুন। হাঁড়িতে তেল গরম করে অর্ধেক পেঁয়াজ কুচি, দারচিনি, এলাচ, তেজপাতা হালকা বাদামী করে ভেজে মেরিনেট করা মাংস দিয়ে নেড়ে কষাতে হবে। ৪ কাপ পরিমাণ পানি দিয়ে মৃদু আঁচে রান্না করতে হবে। মাংস সিদ্ধ হয়ে আসলে ও মাংসের ওপর তেল ভেসে উঠলে নামিয়ে রাখতে হবে। তেল গরম করে পেঁয়াজ কুচি, রসুনের কোয়া, টমেটো কিউব হালকা বাদামী করে ভেজে মাংস কড়াইএ দিয়ে ২/৩মিনিট দমে রেখে নামিয়ে ফেলুন। ব্যস তৈরি হয়ে যাবে গরুর কড়াই গোস্ত।

আলু বোখারায় টক ঝাল গরুর মাংস : কোরবানির ঈদ মানেই ঈদের দিন খাবার টেবিলে থাকতে হবে গরুর মাংসের হরেক রকম পদ। তাই খাবার টেবিলে আইটেমে চমক ও নতুনত্ব আনতে তৈরি করুন আলু বোখারায় টক ঝাল গরুর মাংস।

প্রয়োজনীয় উপকরণ: গরুর মাংস দেড় কেজি, পেঁয়াজ বাটা আধা কাপ, বাদাম বাটা ১ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, আদা বাটা ২ টেবিল চামচ, টক দই ১কাপ, লেবুর রস ১ চা চামচ, শুকনা মরিচ টালা গুঁড়া ১ চা চামচ, কাঁচা মরিচ ৪/৫ টি, হলুদ গুঁড়া আধা চা চামচ, আলু বোখারা ১০/১২টি, কিসমিস বাটা ১ টেবিল চামচ, কাঁচামরিচ ৪/৫টি, ঘি ৩/৪ কাপ, জয়ফল ও জয়ত্রী বাটা আধা চা চামচ।

প্রস্তুত প্রণালী: পেঁয়াজ বাদামী করে ভেজে আদা, রসুন, পেঁয়াজ বাটা, লবণ দিয়ে কষিয়ে মাংস ঢেলে আবার কষাতে হবে। দই, হলুদ,মরিচ, গোলমরিচ ও সামান্য গরম পানি দিয়ে আবার কষাতে হবে। বাদাম ও কিসিমিস বাটা ও অর্ধেক আলু বোখারা বাটা (বিচি ফেলে) ও বাকি অর্ধেক আলু বোখারা আস্ত ছিটিয়ে ৫ মিনিট পর নামিয়ে ফেলুন নতুন এই মজাদার আইটেমটি।

গরুর মাথার মাংস ভুনা : অনেকেই আছেন গরুর মাংস থেকে গরুর মাথার মাংস খেতে বেশি পছন্দ করেন। তবে যেমন তেমন করে রান্না করলে কেউ তেমন একটা পছন্দ করবে না এই খাবারটি। তাই নতুন রেসিপি দিয়ে এবার রান্না করেই দেখুন গরুর মাথার মংস ভুনা।

প্রয়োজনীয় উপকরণ: গরুর মাথার মাংস ১ কেজি, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, টমেটো কুচি আধা কাপ, হলুদ গুঁড়া আধা চা চামচ, আদা বাটা ১ চা চামচ, ধনে গুঁড়া আধা চা চামচ, সরিষার তেল আধা কাপ, গোলমরিচ গুঁড়া আধা চা চামচ, তেজপাতা ২টি, গরম মসলা গুঁড়া ১ চা চামচ।

প্রস্তুত প্রণালী: তেলে পেঁয়াজ বাদামী করে ভেজে হলুদ গুঁড়া, তেজপাতা, মরিচ গুঁড়া, আদা বাটা, রসুন বাটা, পেঁয়াজ বাটা, টমেটো দিয়ে কষাতে হবে। তারপর পরিমাণ মতো গরম পানি দিয়ে ঢেকে দিন। গরম মসলা গুঁড়া, জিরা গুঁড়া, ধনে গুঁড়া, জয়ফল ও জয়ত্রী গুঁড়া দিয়ে ঢেকে দিতে হবে। মাংস সিদ্ধ হয়ে গেলে নামিয়ে পরিবেশন করুন ভাতের সঙ্গে।

লেবু পাতা দিয়ে গরুর মাংস : ঈদের দিন পোলাও, খিচুড়ী ছাড়াও অনেক বাসাতেই মাংসের টেবিলে পরোটা বা চালের রুটি থাকে। তারা এবার কোরবানির ঈদে চালের রুটি বা পরোটার সঙ্গে খেতে পারেন বিফের এক নতুন কারি। লেবুপাতা দিয়ে রান্না করলে ভিন্নস্বাদ আসবেই গরুর মাংসে।

প্রয়োজনীয় উপকরণ: গরুর মাংস ১ কেজি, পেঁয়াজ কুচি ৩ টেবিল চামচ, হলুদ গুঁড়া আধা চা চামচ, আদা বাটা ১ চা চামচ, রসুন বাটা আধা চা চামচ, জিরা বাটা ১ চা চামচ, ধনে গুঁড়া আধা চা চামচ, লেবুর রস ১ চা চামচ, লবণ পরিমাণমতো, গরম মসলা কয়েকটি, টক দই ১ টেবিল চামচ, গোলমরিচ আধা চা চামচ, লেবু পাতা ৭/১০ টি।

প্রস্তুত প্রণালী: তেল গরম করে পেঁয়াজ বাদামী করে ভেজে গরম মসলা, হলুদ গুঁড়া, মরিচ গুঁড়া, আদা ও রসুন বাটা, জিরা ও ধনে, টক দই দিয়ে ভালো করে কষান। মাংস ঢেলে ভালোভাবে ভুনা করুন। পরিমাণমতো পানি দিন। মাংস সিদ্ধ হয়ে গেলে লেবুপাতা ও লেবুর রস দিয়ে নামিয়ে ফেলুন। চালের রুটি বা গরম পরোটার সঙ্গে পরিবেশন করুন লেবু পাতার গরুর মাংস।

গরুর কালা ভুনা : গরুর মাংসের এই মজার খাবারটি সম্পর্কে অনেকেই জানেন। তবে এর আসল রেসিপি জানেন না অনেকেই। ঐতিহাসিক এই লোভনীয় খাবারটি এই ঈদে আপনার খাবারের মেনুতে নিয়ে আসতে পারে টুইস্ট।

প্রয়োজনীয় উপকরণ: গরুর মাংস দেড় কেজি, আদা বাটা ১ টেবিল চামচ, রসুন বাটা আধা চা চামচ, হলুদ গুঁড়া আধা চা চামচ, মরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ, ধনে গুঁড়া ১ টেবিল চামচ, গোলমরিচ গুঁড়া আধা টেবিল চামচ, এলাচ, দারচিনি , তেজপাতা কয়েকটি, গরম মসলা গুঁড়া আধা চা চামচ, লবণ পরিমাণমতো, সরিষার তেল পরিমাণমতো, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ।

প্রস্তুত প্রণালী: গরুর মাংসের সঙ্গে সব উপকরণ এক সঙ্গে মেখে রান্না করুন। মাংস সিদ্ধ হয়ে পানি শুকিয়ে এলে লোহার কড়াই এ সরিষার তেলে হালকা আঁচে মাংস কালো করে ভেজে তুলে নিন। গরুর মাংসের মজাদার রান্না গুলো আশা করি আপনাদের ভালো লাগবে। তাহলে আর দেরি না করে এখনি প্রস্তুতি নিন রান্না করার জন্য। কারণ ঈদ আসন্ন।

ইরানি ভুনা : উপকরণ :গরুর মাংস ৩ কেজি, কিশমিশ বাটা ১ টেবিল চামচ, আমন্ড বাদাম বাটা ২ টেবিল চামচ, পেস্তাবাদাম বাটা ১ টেবিল চামচ, খোবানি বাটা ২ টেবিল চামচ, আলু বোখারা বাটা ১ টেবিল চামচ, কাশ্মীরি মরিচ বা লাল মরিচগুঁড়া ১ টেবিল চামচ, হলুদগুঁড়া আধা চা-চামচ, জিরা বাটা ১ চা-চামচ, ধনে বাটা ১ চা-চামচ, গরম মসলাগুঁড়া ১ চা-চামচ, গোল মরিচগুঁড়া ১ চা-চামচ, লবণ স্বাদমতো, দারুচিনি ৪ টুকরা, বড় এলাচি ২টি, ছোট এলািচ ৪টি, লবঙ্গ ৬টি, টকদই আধা কাপ, পেঁয়াজকুচি দেড় কাপ, বাটার অয়েল ১ কাপ, তেল আধা কাপ, চিনি ১ চা-চামচ, জায়ফল-জয়ত্রীগুঁড়া আধা চা-চামচ, গোটা কাজু-আমন্ড-পেস্তা আধা কাপ, খোবানি ও আলু বোখারা আধা কাপ।

প্রণালি: আদা, রসুন, জিরা, ধনে বাটা, জায়ফল-জয়ত্রী, হলুদ, মরিচগুঁড়া, টকদই ও লবণ মাংসে মেখে রাখুন। ৪-৫ ঘণ্টা ম্যারিনেট করুন। মাঝে মাঝে নেড়েচেড়ে দিন। চুলায় তেল গরম করে আধা কাপ পেঁয়াজ লাল করে ভেজে তাতে মাখানো মাংস দিয়ে নেড়ে দিন। ঢাকনা দিয়ে ঢেকে রান্না করুন, মাঝে মাঝে নেড়ে দিন। কিছুক্ষণ পর আস্ত আলু বোখারা ও খোবানি দিন। মাংস তেলের ওপর আসলে পানি দিয়ে সেদ্ধ করুন। অন্য পাত্রে বাটার অয়েলে পেঁয়াজ লাল করে ভেজে তাতে বাকি সমস্ত উপকরণ দিয়ে ভুনে নিন। এরপর এতে মাংস আমন্ড-পেস্তা-কাজু ও গরম মসলার গুঁড়া দিয়ে ভুনা ভুনা করে নামান।

কাটা মসলার মাংস : উপকরণ : গরুর মাংস ২ কেজি, পেঁয়াজকুচি ১ কেজি, আদা মিহিকুচি ২ টেবিল চামচ, রসুন ২ টেবিল চামচ, শুকনা মরিচ ফালি ৬-৭টি বা পরিমাণমতো, কাঁচামরিচ (ফালি করা) পরিমাণমতো, আস্ত কাঁচামরিচ ৫-৬টি, দারুচিনি ৬ টুকরো, এলাচি ৬টি, লবঙ্গ ৬টি, তেজপাতা ৩-৪টি, আধা ভাঙা গোলমরিচ ১ চা-চামচ, টকদই আধা কাপ, লবণ স্বাদমতো, সরষের তেল ১ কাপ, বেরেস্তা আধা কাপ, টমেটো সস ৩ টেবিল চামচ, আলুবোখারা ৬টি।

প্রণালি : বেরেস্তা ও আস্ত কাঁচামরিচ বাদে বাকি সব উপকরণ একসঙ্গে মাখিয়ে দু-তিন ঘণ্টা রেখে পরিমাণমতো গরম পানি দিয়ে চুলায় জ্বাল দিতে হবে। প্রথম ১০ মিনিট বেশি জ্বালে তারপর অল্প জ্বালে রান্না করতে হবে। ঝোল কমে এলে বেরেস্তা, কাঁচামরিচ দিয়ে কিছুক্ষণ চুলায় রেখে নামাতে হবে।

হাঁড়িবন্ধ : উপকরণ : গরুর মাংস বড় টুকরো করে কাটা ৬ কেজি, পেঁয়াজ ৪ টুকরা করে কাটা ১ কেজি, আদা কিমা ১ কাপ, রসুনকুচি সিকি কাপ, রসুন কোয়া আধা কাপ, শুকনা মরিচ ফালি আধা কাপ, গাজর মোটা করে কাটা ১ কাপ, গোলমরিচ আধা ভাঙা ২ চা-চামচ, দারুচিনি ৬ টুকরা, এলাচি ১০টি, লবঙ্গ ৮টি, তেজপাতা ৪টি, টমেটো (দুই ফালি করে কাটা) আধা কেজি, তেল ১ লিটার, পানি ৪ লিটার, লবণ ২ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ বেরেস্তা ১ কাপ, কাঁচামরিচ ৮/১০টি, গরম মসলাগুঁড়া ১ টেবিল চামচ।

প্রণালি: বড় হঁাড়িতে পেঁয়াজ বেরেস্তা বাদে সমস্ত উপকরণ দিয়ে মাংস মাখিয়ে নিন। এবার আটা গুলে হাঁড়ির মুখে ভালো করে আটকে দিন। মাঝারি আঁচে ১ ঘণ্টা ফুটান। প্রথম দুদিন এভাবে ১ ঘণ্টা করে ৩ বেলা জ্বাল দিন। পরের ২/৩ দিন ১ ঘণ্টা করে ২ বেলা মাঝারি থেকে অল্প জ্বালে ফুটান। যেন নিচে লেগে না যায় খেয়াল রাখতে হবে। এভাবে ৪/৫ দিন পর হঁাড়ির ঢাকনা খুলে কাঁচামরিচ, গরম মসলা ও বেরেস্তা দিয়ে কিছুক্ষণ ফুটিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন।

মাংসের জঙ্গল কারি : উপকরণ : গরুর মাংস জুলিয়ান করে কাটা ৫০০ গ্রাম, কারি পেস্ট (লাল শুকনো মরিচ ৪টি, রসুন ৪ কোয়া, লেমন গ্রাসের গোড়ার দিকের সাদা অংশ ১ টেবিল চামচ, আদাকুচি ২ চা-চামচ, পেঁয়াজকুচি আধা কাপ, ধনেপাতা ২ চা-চামচ। সব উপকরণ সামান্য লবণ দিয়ে ব্লেন্ড করে নিতে হবে), গাজর জুলিয়ান কাটা আধা কাপ, বেবি কর্ন (৪ টুকরো করে কাটা) ৪-৫টি, বরবটি জুলিয়ান কাটা আধা কাপ, টমেটো টুকরো ১ কাপ, সবুজ ক্যাপসিকাম জুলিয়ান কাটা আধা কাপ, পেঁয়াজ জুলিয়ান কাটা আধা কাপ, পালংশাক ১ কাপ, কাঁচামরিচ (৪ টুকরো করে কাটা) ২ টেবিল চামচ, আদা জুলিয়ান কাটা ১ টেবিল চামচ, বাটন মাশরুম (অর্ধেক করে কাটা) আধা কাপ, মাংসের স্টক ৩ কাপ, ফিশ সস ২ টেবিল চামচ, ডার্ক সয়া সস ২ টেবিল চামচ, ব্রাউন সুগার ২ চা-চামচ, তেল ৪ টেবিল চামচ, তাজা তুলসীপাতা ১ কাপ।

প্রণালি : পাত্রে তেল গরম করে কারি পেস্ট কষিয়ে নিন। মাংসের টুকরোগুলো কারি পেস্টে কিছুক্ষণ ভুনে মাংসের স্টক, ফিশ সস, সয়া সস, ব্রাউন সুগার দিয়ে সেদ্ধ করে নিন। এবার সমস্ত সবজি দিয়ে ৭/৮ মিনিট ফুটিয়ে নিয়ে নিন। তুলসীপাতা দিয়ে নামিয়ে নিন।

কাজু-মাংসের সালাদ : উপকরণ :কোল্ড মিট অথবা সেদ্ধ মাংস জুলিয়ান কাটা ২ কাপ, গাজর জুলিয়ান কাটা ১ কাপ, টমেটো কুচি ১ কাপ, ক্যাপসিকাম জুলিয়ান কাটা আধা কাপ, স্প্রিং অনিয়ন সিকি কাপ, কাজুবাদাম ১ কাপ, সাদা গোলমরিচগুঁড়া ১ চা-চামচ, কাঁচামরিচকুচি ১ চা-চামচ, টমেটো সস ২ টেবিল চামচ, লবণ স্বাদমতো, মেয়োনেজ আধা কাপ, সালাদ ড্রেসিং ২ টেবিল চামচ, লেবুর রস ১ টেবিল চামচ, আধা সেদ্ধ বেবি কর্ন আধা কাপ, মাখন ২ টেবিল চামচ।

প্রণালি : ১ টেবিল চামচ মাখন গরম করে তাতে মাংস ভেজে উঠিয়ে রাখুন। ১ টেবিল চামচ মাখন গরম করে সামান্য লবণ দিয়ে কাজুবাদাম ভেজে তুলে নিন। ঠান্ডা হলে সমস্ত উপকরণ একসঙ্গে মেখে নিন। এবার মেয়োনেজ দিয়ে কিছুক্ষণ ফ্রিজে রেখে ঠান্ডা ঠান্ডা পরিবেশন করুন।

কেরালা বিফ রোস্ট : উপকরণ : হাড় ছাড়া গরু বা খাসির মাংস ১ কেজি, নারকেল পাতলা করে কাটা ১ কাপ, নারকেল দুধ ২ কাপ, নারকেলের পানি ১ কাপ, আদা কিমা ১ টেবিল চামচ, রসুন কিমা ১ টেবিল চামচ, পেঁয়াজকুচি দেড় কাপ, লাল মরিচগুঁড়া আধা চা-চামচ, গরম মসলাগুঁড়া ১ চা-চামচ, ঘি আদা কাপ, কারিপাতা আধা কাপ, লবণ স্বাদমতো।

প্রণালি : মাংস চর্বি ও পর্দা বাদ দিয়ে জুলিয়ান করে কেটে নিন। প্রেশার কুকারে আধা কাপ পেঁয়াজ, আদা, রসুন, সমস্ত গুঁড়ামসলা, লবণ, নারকেলের পানি ও নারকেলের দুধ দিয়ে সেদ্ধ করে ঝোল শুকিয়ে নিন। চুলায় ঘি গরম করে কারিপাতা, নারকেলের টুকরা, বাকি পেঁয়াজকুচি ও কাঁচামরিচ ভেজে অর্ধেকটা তুলে নিন। এবার সেই পাত্রে মাংস ভেজে নিয়ে তুলে পরিবেশন পাত্রে ঢালুন। এর ওপরে কারিপাতা, নারকেলের টুকরার মিশ্রণ ছড়িয়ে দিয়ে পরিবেশন করুন।

গার্লিক বিফ : উপকরণ: গরুর মাংস ১ কেজি, পরিষ্কার করে নেওয়া আস্ত রসুন ১ কেজি, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, সরিষা তেল ১ কাপ, মরিচের গুঁড়া ২ চা চামচ, হলুদের গুঁড়া ১ চা চামচ, আদা ও রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ করে, ধনে গুঁড়া ১ চা চামচ, জিরা গুঁড়া ১ চা চামচ, পাঁচ ফোড়ন গুঁড়া ৩ চা চামচ, তেজপাতা ২টি, এলাচ ৪টি, দারুচিনি ২টি, কাচা মরিচ আস্ত ১০টি ও লবণ পরিমাণ মতো

প্রণালি: প্রথমে মাংস ভালো করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে রাখতে হবে। আস্ত রসুন ও পেঁয়াজ বাদে সব মসলা মাংসের সঙ্গে তেল দিয়ে ভালোভাবে মাখাতে হবে। ১০ মিনিট মাখিয়ে রেখে চুলায় অল্প আঁচে বসাতে হবে। পানি শুকিয়ে গেলে অল্প গরম পানি দিয়ে আবার রান্না করতে হবে। পানি শুকিয়ে তেল ওপরে উঠলে মাংস সিদ্ধ হয়ে গেলে আস্ত রসুনগুলো দিয়ে দিতে হবে। রসুন আধা সিদ্ধ হলে ১০ মিনিট রেখে নামিয়ে নিতে হবে। গরম-গরম পরিবেশন করতে হবে। পেঁয়াজ বেরেস্তা ভেজে ওপরে দিতে হবে।

মিট ফ্লাগ : উপকরণ: ময়দা আধা কাপ, টোস্ট বিস্কুটের গুঁড়া ১ কাপ, বড় ডিম ১টি, মাখন ৫০ গ্রাম ও লবণ সিকি চা-চামচ।
ফিলারের জন্য: মাংসের সেদ্ধ কিমা ১ কাপ, পনির আধা কাপ, ডিম ২টি, মোজারোলা চিজ আধা কাপ, টমেটো সস ৪ টেবিল চামচ, লবণ পরিমাণমতো, গোলমরিচ গুঁড়া ১ চা-চামচ, পেঁয়াজ কুচি সিকি কাপ, কাঁচা মরিচ কুচি ১ চা-চামচ, পুদিনাপাতার কুচি দুই টেবিল চামচ, গরমমসলার গুঁড়া আধা চা-চামচ, বেকিং পাউডার ১ চা-চামচ ও ক্যাপসিকাম বিভিন্ন রঙের।

প্রণালি: ময়দা, মাখন, লবণ একসঙ্গে ভালো করে ময়ান দিয়ে টোস্টের গুঁড়া মিশিয়ে ডিম দিয়ে মাখতে হবে। প্রয়োজনে সামান্য পানি দিয়ে মেখে গ্রিজ করা ফ্ল্যান ডিশে সেট করে ১৮০ সেলসিয়াস তাপমাত্রায় ১৫ মিনিট বেক করে ফিলারের উপকরণ দিয়ে ২০-২৫ মিনিট বেক করে নিতে হবে। ডিমের সাদা অংশ অর্ধেক চিজ, অর্ধেক সস বাদে বাকি সব উপকরণ একসঙ্গে মাখিয়ে ফোম করে মাংসের মিশ্রণ ভাঁজে মিলিয়ে ফ্ল্যান ডিশে ঢেলে বেক করে চিজ ও সস দিয়ে আরও ২ মিনিট বেক করে পছন্দমতো রঙের ক্যাপসিকাম দিয়ে পরিবেশন করতে হবে।

বিফ রাগু : উপকরণ: হাড় ছাড়া গরুর মাংস ছোট করে কাটা ৫০০ গ্রাম, গরুর মাংসের কিমা ৫০০ গ্রাম, টমেটোর খোসা বাদ দিয়ে ছোট করে কাটা ২ কাপ, টমেটো পিউরি আধা কাপ, রেড চিলি পেস্ট ২ টেবিল চামচ, লাল ক্যাপসিকাম ছোট করে কাটা ১টি। গাজরকুচি আধা কাপ, গোলমরিচ গুঁড়া ১ চা-চামচ, পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, রসুন কিমা ২ টেবিল চামচ, লাল ভিনেগার কাপের চার ভাগের তিন ভাগ, জলপাই তেল ৩ টেবিল চামচ, পাপরিকা ১ চা-চামচ, অরিগ্যানো ২ চা-চামচ, চিনি ২ চা-চামচ, লবণ পরিমাণমতো, সেদ্ধ পাস্তা ২ কাপ, পারমিজান চিডা ২ টেবিল চামচ ও পার্সলে কুচি ২ টেবিল চামচ।

প্রণালি: জলপাই তেল গরম করে রসুন, পেঁয়াজ ভেজে মাংস দিয়ে অল্প আঁচে রান্না করতে হবে। মাংস সেদ্ধ হয়ে এলে গাজর, মাংসের কিমা, টমেটো কুচি, টমেটো পিউরি, রেড ভিনেগার, ক্যাপসিকাম দিয়ে নাড়তে হবে। পাস্তা, পারমিজন চিডা, পার্সলে বাদে বাকি উপকরণ পর্যায়ক্রমে দিতে হবে আর নাড়তে হবে। ঘন হয়ে এলে সেদ্ধ পাস্তা, পারমিজন চিডা, পার্সলে কুচি দিয়ে পরিবেশন করুন।

গরুর মাংসের কোরমা : উপকরণ: গরুর মাংস ২ কেজি, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, তেল আধা কাপ, পেঁয়াজবাটা ২ টেবিল চামচ, আদাবাটা ২ টেবিল চামচ, রসুনবাটা ১ টেবিল চামচ, লবণ পরিমাণমতো, গোলাপজল ১ টেবিল চামচ, টক দই আধা কাপ, মিষ্টি দই ২ টেবিল চামচ, এলাচি ৬টি, দারুচিনি ৮ টুকরা, ঘি ২ টেবিল চামচ, কিশমিশ ২ টেবিল চামচ, আলুবোখারা ৮-১০টা, লবঙ্গ ৬-৭টি, বড় এলাচি দুটি, সাদা গোলমরিচ গুঁড়া ১ চা-চামচ ও মরিচ গুঁড়া আধা চা-চামচ।

প্রণালি: মাংস টকদইয়ে মাখিয়ে ১ ঘণ্টা রাখতে হবে। ঘি তেল গরম করে পেঁয়াজ লাল করে ভেজে সব বাটা মসলা, গুঁড়া মসলা কষিয়ে মাংস দিয়ে ২-৩ বার কষিয়ে গরম পানি দিয়ে মাংস রান্না করতে হবে। মাংস সেদ্ধ হয়ে ঝোল কমে এলে আলুবোখারা, কিশমিশ দিয়ে কিছুক্ষণ দমে রেখে নামাতে হবে।

মিটবল উইথ চিজ : উপকরণ: মাংসের মিহি কিমা ৫০০ গ্রাম, কর্নফ্লাওয়ার ২ টেবিল চামচ, ময়দা ২ টেবিল চামচ, গোলমরিচ গুঁড়া ১ চা-চামচ, লবণ পরিমাণমতো, লেবুর রস ১ টেবিল চামচ, আদাবাটা আধা চা-চামচ, রসুনবাটা আধা চা-চামচ, পনির গুঁড়া (মোজারোলা) ৩ টেবিল চামচ, ডিম ১টি, কাপরিকা ১ চা-চামচ, মরিচ ভাজা গুঁড়া আধা চা-চামচ, টমেটো সস ১ টেবিল চামচ, তেল ২ টেবিল চামচ, ব্রেড ক্রাম ১ কাপ।

প্রণালি: ব্রেড ক্রাম ও ডিম বাদে বাকি সব উপকরণ একসঙ্গে মাখিয়ে গোল গোল করে নিতে হবে। ডিম ফেটিয়ে মিটবল ডিমে ডুবিয়ে ব্রেডক্রামে গড়িয়ে কাবাব স্টিকে গেঁথে বেকিং ট্রেতে সাজিয়ে প্রিহিটেড ওভেনে ২০০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে বেক করতে হবে।

 


শেয়ার করতে ক্লিক করুন:

আমাদের বরিশাল ডটকম -এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
(মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। amaderbarisal.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের মিল আছেই এমন হবার কোনো কারণ নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে amaderbarisal.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নেবে না।)
দম ফেলার সুযোগ নেই বরিশালের পার্লারে নরসুন্দরদের
হৃদরোগ ঠেকাবে ব্যায়াম
বরিশালে সেরা রাঁধুনী তিন জন বাছাই
বরিশালে সেরা রাঁধুনী বাছাই ১১ ডিসেম্বর
গরুর মাংশের ১৯ রকম পদ
অনুরোধেই বেজে উঠে বাউল সোহারাবের এক তারা
কুলে আছে দশ পুষ্টিগুণ
Recent: Mayor Hiron Barisal
Recent: Barisal B M College
Recent: Tender Terror
Kuakata News

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
আমাদের বরিশাল ২০০৬-২০১৪

প্রকাশক ও নির্বাহী সম্পাদক: মোয়াজ্জেম হোসেন চুন্নু, সম্পাদক: রাহাত খান
৪৬১ আগরপুর রোড (নীচ তলা), বরিশাল-৮২০০।
ফোন : ০৪৩১-৬৪৫৪৪, ই-মেইল: [email protected]