AmaderBarisal.com Logo

কলাপাড়ায় ইউপি সদস্য’র স্ব-ঘোষিত আদালতঃ জেলে পরিবারকে শিকলে বেঁধে নির্যাতন


আমাদেরবরিশাল.কম

৫ মে ২০১২ শনিবার ৯:২৯:১৪ অপরাহ্ন

কলাপাড়া, ৫ মে (মেজবাহউদ্দিন মাননু/আমাদের বরিশাল ডটকম): দাদনের টাকা পরিশোধ করতে ব্যর্থ হওয়ায় নিজের স্ব-ঘোষিত আদালতে জেলে পরিবারকে শিকলে বেঁধে মারধর করে একরাত আটকে রাখলেন আবুল হোসেন নামে স্থানীয় এক ইউপি সদস্য। কলাপাড়া উপজেলার ধুলাসার ইউনিয়নের চরগঙ্গামতি গ্রামে ৩ মে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে ঘটনা ঘটে। এসময় সাদা একটি কার্টিজ পেপারে জেলে দম্পতির টিপসই রাখা হয়। জেলে ইব্রাহিম মুন্সী (৩৪) তার স্ত্রী আয়শা আক্তার (২৫) এর সাথে তাদের কিশোরী মেয়ে রেখা বেগমকে (১৮) ও শিকল বেঁধে একইভাবে নির্যাতন করা হয়। ৫ মে শনিবার কলাপাড়া প্রেসক্লাবে এসে নির্যাতনের শিকার এ পরিবারটি সাংবাদকর্মীদের কাছে এ ঘটনা জানিয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।

জেলে ইব্রাহিম মুন্সি ও তার স্ত্রী আয়শা জানায়, প্রায় পাঁচ বছর ধরে স্থানীয় দাদনদার হানিফ ফরাজির কাছ থেকে টাকা নিয়ে তিনি সাগরে মাছ শিকার করে সংসারের ভরণ-পোষণ করে আসছেন। গত বছর ৩৫ হাজার টাকা দাদন নিয়ে সাগরে মাছ শিকার করতে যান তিনি। কিন্তু ঝড়ের কবলে পড়ে জাল-নৌকা সব হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে যায় এই পরিবারটি। যে কারণে সেই দাদনের টাকা আজো শোধ দিতে পারেননি তিনি। এদিকে দাদনের টাকা শোধ করতে নানাভাবে চাপ দেয়া হয় ইব্রাহিমকে। এক পর্যায়ে তাদের বসতভিটি লিখে দিতে চাপ দেয়া হয়। আল্টিমেটাম দেয়া হয় ৩০ চৈত্রের মধ্যে টাকা না দিলে বসতভিটিসহ জমির দখল নেয়া হবে। এরমধ্যে একদফা মারধর করা হয় ইব্রাহিমকে। উপায় না পেয়ে তিনি (ইব্রাহিম) দাদনের টাকা শোধ করতে অন্যত্র জমি বিক্রি করে দেন। কিন্তু টাকা এখেনো হাতে পায়নি। ফলে দাদনের টাকা সময়মতো শোধ দিতে পারেননি। এই অজুহাতে দাদনদার হানিফ ফরাজি ও ইউপি সদস্য আবুল হোসেন তার ২০-২৫ক্যাডার নিয়ে ওই দম্পতিকে মেয়েসহ জোর করে তার বাড়িতে নিয়ে নিজস্ব আদালত বসায়। এরপর সে আদালতের রায় অনুসারে তাদের তিনজনকে শিকলে বেঁধে মারধর করে সারারাত আটকে রাখা হয়। সকালে একটি কার্টিজ পেপারে জেলে দম্পতির সই রেখে দেয়া হয়। এদিকে নির্যাতনের খবর পেয়ে স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা আনোয়ার গাজী এই দম্পতিকে মেয়েসহ উদ্ধার করে চিকিৎসা করান।

এব্যাপারে অভিযুক্ত ইউপি সদস্য আবুল হোসেন জানান, আমি কোন আদালত বসাইনি কিংবা কাউকে মারধরও করিনি। শুধুমাত্র মিমাংসার জন্য ওদেরকে আমার বাড়িতে নিয়ে আসা হয় এবং পরদিন সকালে তাদেরকে নিজ থেকেই ছেড়ে দিয়েছেন বলে দাবি করেন তিনি।


(আমাদের বরিশাল ডটকম/কলাপাড়া/মেমা/তাপা)



সম্পাদনা: সেন্ট্রাল ডেস্ক


প্রকাশক: মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন তালুকদার    সম্পাদক: মো: জিয়াউল হক
সাঁজের মায়া (২য় তলা), হযরত কালুশাহ সড়ক, বরিশাল-৮২০০। ফোন : ০৪৩১-৬৪৫৪৪, মুঠেফোন : ০১৮২৮১৫২০৮০ ই-মেইল : hello@amaderbarisal.com
আমাদের বরিশাল ডটকম -এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।