AmaderBarisal.com Logo

বিএম কলেজের ছাত্র সংসদ নির্বাচনের দরজা খুলছে


আমাদেরবরিশাল.কম

১০ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ রবিবার ৩:১৪:৪৫ অপরাহ্ন

bm-college-building-logo বরিশাল সরকারি বিএম কলেজ ক্যাম্পাস
ফাইল ছবি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচনের তারিখ ঘোষণার পর বরিশাল সরকারি ব্রজমোহন (বিএম) কলেজের ছাত্র সংসদ নির্বাচনেরও উদ্যোগ শুরু হয়েছে। সম্প্রতি ছাত্রদের আন্দোলন ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সবুজ সংকেত নড়েচরে বসেছে কলেজ কর্তৃপক্ষ। চুড়ান্ত ঘোষণা পেলেই নির্বাচন প্রস্তুতি নিতে কলেজ কর্তৃপক্ষ মাঠে নামবে বলে সূত্রে জানাগেছে।

বিএম কলেজ সূত্রে জানাগেছে, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ২ হাজার ২৬০টি কলেজ রয়েছে। তাদের লক্ষ্য হলো প্রথমে সরকারি এবং বেসরকারি বড় কলেজগুলোর ছাত্র সংসদ নির্বাচন করা। একসঙ্গে না করে ভাগ ভাগ করে এই নির্বাচন করতে চাইছে তারা।

স¤প্রতি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক হারুন-অর-রশিদ নির্বাচনের পরিকল্পনার কথা সাংবাদিকদের জানিয়েছেন। তিনি বলেন, শিগগিরই জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন কলেজগুলোর ছাত্র সংসদ নির্বাচনের উদ্যোগ নেওয়া হবে। ২৩ ফেব্রুয়ারি বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট সভায় বিষয়টি তুলবেন। এরপর নির্বাচন করার আনুষ্ঠানিক উদ্যোগ শুরু করবেন।

সূত্রে জানাগেছে, ডাকসু নির্বাচনের ওপর নির্ভর করছে বিএম কলেজের বাকসু নির্বাচনের ভবিষ্যৎ। সরকারের নীতিনির্ধারকদের চিন্তা হলো, ছাত্র সংসদ নির্বাচন করতে গিয়ে যেন আবার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বিদ্যমান সুষ্ঠু পরিবেশ নষ্ট না হয়। তাই তাঁরা দেখতে চান ডাকসুর নির্বাচন শান্তিপূর্ণভাবে হয় কি না। যদি হয়, তাহলে অন্যান্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানেও নির্বাচনেরও আয়োজনে সায় দেবেন তাঁরা।

বিএম কলেজের একাধিক শিক্ষকদের মতে, মূলত তিন কারণে এসব ছাত্র সংসদের নির্বাচন আটকে আছে। প্রথমত, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ‘ঝুঁকি’ নিতে চায় না। দ্বিতীয়ত, সরকার চায় না নির্বাচন করে নতুন ‘ঝামেলা’ সামনে আসুক। আবার ছাত্রসংগঠনগুলোও এ বিষয়ে একমত হতে পারে না।

এদিকে ডাকসু নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর পরেই বিএম কলেজের কাম্পাসে ক্রিয়াশীল ছাত্র সংগঠনগুলোর নেতাকর্মীদের মধ্যে উদ্দীপনা লক্ষ করা যাচ্ছে। ছাত্রলীগ, ছাত্রমৈত্রী, ছাত্র ইউনিয়ন এবং ছাত্র ফ্রন্টের নেতারা বাকসু নির্বাচন নিয়ে নানা পরিকল্পনার কথা বললেও ক্যাম্পাসে দেখা যাচ্ছে না ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের। তাদের অভিযোগ, নির্বাচনের কোনো পরিবেশই নেই। তারা ছাত্রলীগের হুমকিধমকিতে কলেজে প্রবেশ করতে পারছেন নাজানা গেছে, বিএম কলেজ ছাত্র সংসদ গঠনের দাবিতে ছাত্র সংগঠনগুলো আনেক আগ থেকেই আন্দোলন করে আসছে।

তবে বিভিন্ন কারণে ছাত্র সংসদ নির্বাচনের আয়োজন করতে পারেনি কলেজ কর্তৃপক্ষ। সর্বশেষ এই কলেজে ছাত্র সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় ২০০৩ সালে। ওই নির্বাচনে ছাত্রদল থেকে মশিউল আলম সেন্টু ভিপি নির্বাচিত হন। এরপর আর নির্বাচন হয়নি। ২০১১ সালে তিন মাসের জন্য বাকসুর আদলে বহু বিতর্কীত অস্থায়ী ছাত্র কর্মপরিষদ গঠন করা হয়। পরিষদে ভিপি হন কলেজ ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মঈন তুষার। তবে নানা বিতর্কের মুখে এবং সাবেক মেয়র শওকত হোসেন হিরনের মৃত্যুর পর স্থবির হয়ে পড়ে কর্মপরিষদের কার্যক্রম। এরপর নানা সময় বাকসু নির্বাচনের দাবি উঠলেও তাতে কান দেয়নি কলেজ প্রশাসন। এখন নতুন করে ছাত্র সংসদ নির্বাচন হোক, তা ছাত্র-শিক্ষক সবাই চাচ্ছেন।

ছাত্রলীগ নেতা আতিকুল্লাহ মুনিম জানান, একটি কলেজে ছাত্র সংসদ খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। আশা করছি, কলেজ প্রশাসন আর বেশি বিলম্ব করবে না। দ্রুত নির্বাচন হলে শিক্ষার্থীদের স্বার্থ নিয়ে কাজ করা যাবে। এছাড়া এটা শিক্ষার্থীদের প্রাণের দাবিও। রেজভী আহম্মেদ রাজা রাঢ়ী বলেন, দীর্ঘ বছর বাকসুর কোনো কার্যক্রম নেই। আমরা চাই কলেজের ছাত্র সংসদ সচল করতে। এটা হলে ক্যাম্পাসে চাঞ্চল্য ফিরে আসবে।

ছাত্র মৈত্রীর সভাপতি জয় চক্রবর্তীর মতে, নানা কারণে নির্বাচনের আয়োজন করতে পারেনি কলেজ কর্তৃপক্ষ। এবার যদি উদ্যোগ নেয়া হয়, তাহলে সেটা উত্তম সিদ্ধান্ত হবে। আমরাও আমাদের ক্যাম্পাসে প্রাণচাঞ্চল্য দেখতে চাই। শিক্ষার্থীরা তাদের দাবি আদায়ের মুখপাত্র পাচ্ছে না। যে কারণে নানা সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে শিক্ষার্থীদের। এ কারণেই ছাত্র সংসদের নির্বাচন অত্যাবশ্যক।

বরিশাল মহানগর ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ন কবির জানান, এ মুহূর্তে বিএম কলেজে ছাত্র সংসদ নির্বাচনের পরিবেশ নেই। এক পাক্ষিক রাজনীতি চলছে। যেখানে প্রশাসনের সাপোর্টও পাচ্ছেন তারা। কলেজ কর্তৃপক্ষ যদি নিরাপত্তা নিশ্চিত দেয়, তাহলে অবশ্যই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে ছাত্রদল।

কলেজের শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক আলামিন সরোয়ার জানান, বাকসু নির্বাচন অত্যন্ত জরুরি। নির্বাচনের কার্যক্রম শুরু হলে বাকসু নির্বাচনের কার্যক্রমও শুরু হবে।

কলেজের অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান সিকদার বলেন, দেশের কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছাত্র সংসদ নেই। তারপরও আমরা নির্বাচন আয়োজনের চেষ্টা করছি।



সম্পাদনা: বরি/প্রেস/মপ


প্রকাশক: মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন তালুকদার    সম্পাদক: মো: জিয়াউল হক
সাঁজের মায়া (২য় তলা), হযরত কালুশাহ সড়ক, বরিশাল-৮২০০। ফোন : ০৪৩১-৬৪৫৪৪, মুঠেফোন : ০১৮২৮১৫২০৮০ ই-মেইল : [email protected]
আমাদের বরিশাল ডটকম -এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।