AmaderBarisal.com Logo

আমতলীতে চাচার নেতৃত্বে ভাতিজার ঘড়ে হামলা


আমাদেরবরিশাল.কম

১২ জুন ২০১৯ বুধবার ৬:৩৮:৫০ অপরাহ্ন

barguna-news-map বরগুনা হিন্দু পরিবারকে উচ্ছেদের অভিযোগে একজন গ্রেফতার সংবাদ মানচিত্র

আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি::: আমতলীর দক্ষিণ রাওঘা গ্রামে বুধবার সকাল ১০ টায় চাচা মো: নজরুল ইসলাম মৃধার নেতৃত্বে ভাতিজা মামুন মৃধার বসত ঘড় ভাংচুর করে স্বর্ন নগদ টাকাসহ প্রায় সাড়ে ৩ লক্ষ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, আমতলী উপজেলার দক্ষিণ রাওঘা গ্রামের চাচা মো: নজরুল ইসলাম মৃধার সাথে তার ভতিজা মো: মামুন মৃধার সাথে ৪৪ শতাংশ জমি নিয়ে দীর্ঘ ৯ বছর ধরে দ্বন্দ চলে আসছে। দ্বন্দের রেশ ধরে এবং মামুন মৃধার দখলে থাকা ১৪ শতাংশ বসত বাড়ির জমি জোর পূর্বক দখলে নেওয়ার জন্য বুধবার সকাল ১০টায় চাচা মো: নজরুল ইসলাম মৃধার নেতৃত্বে প্রায় ২০-৩০ জন সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে হামলা করে।

হামলা কারীরা ঘড়ের দরজা জানালা ভেঙ্গে তছনছ করে ফেলে। এসময় তারা ঘড়ে থাকা নগদ ৭৫ হাজার টাকা, ৩ ভরি স্বর্ন ও থালাবাসনসহ লক্ষাধিক টাকা মূল্যের আসবাব পত্র লুট করে নিয়ে যায়। তাদের এ লুটে বাঁধা দিলে ঘড়ে থাকা মামুনের বৃদ্ধা মা মালেকা বেগম এবং ছোট ভাইয়ের স্ত্রী ৫ মাসের অন্ত:সত্তা মারিয়া বেগকেও মারধর করে। মারধরে মালেকা বেগমের পা ভেঙ্গে যায় এবং মারিয়া বেগমের পেটে আঘাত করলে সে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। তাৎক্ষনিক স্বজনরা তাদের উদ্ধার করে আমতলী হাসপাতালে ভর্তি করান। বর্তমানে মারিয়ার অবস্থা সংকট জনক।

মামুন মৃধা অভিযোগ করে বলেন, আমার বাবা আব্দুর রশিদ মৃধা মারা যাওয়ার পর চাচা নজরুল ইসলাম মৃধা আমাদের পৈত্রিক সম্পত্তি আমাদের বুঝিয়ে না দিয়ে জোর পূর্বক ভোগ দখল করে আসছে। এবছর মার্চ মাসে এক সালিস বৈঠকের মাধমে বসত ঘড়সহ ১৪ শতাংশ জমি বুঝিয়ে দেয় আমাদের। বুঝিয়ে দেওয়ার সেখানে আমারা বসবাস করতে শুরু করি। কিন্ত ফের ওই বুঝিয়ে দেওয়া জমি বসতঘড়সহ দখলে নেওয়ার জন্য মরিয়া হয়ে ওঠে চাচা মো: নজরুল ইসলাম মৃধা। আমি বাড়ি না থাকার সুযোগে চাচা নজরুল ইসলাম বুধবার সকাল ১০টায় একদল সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে আমাকে উচ্ছেদের জন্য আমার ঘড়ে হামলা করে ভাংচুর ও মালামাল নগদ টাকা ও আসবাব পত্র লুটপাট করে। আমি এর সুষ্ঠু বিচার চাই।

চাচা মো: নজরুল ইসলাম এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমরা কোন ভাংচুর কিংবা কোন মালামাল লুট করিনাই। এ অভিযোগ সম্পূর্ন মিথ্যা।

আমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো: আবুল বাশার জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। মামলা হলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।



সম্পাদনা: বরি/প্রেস/মপ


প্রকাশক: মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন তালুকদার    সম্পাদক: মো: জিয়াউল হক
সাঁজের মায়া (২য় তলা), হযরত কালুশাহ সড়ক, বরিশাল-৮২০০। ফোন : ০৪৩১-৬৪৫৪৪, মুঠেফোন : ০১৮২৮১৫২০৮০ ই-মেইল : [email protected]
আমাদের বরিশাল ডটকম -এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।