Current Bangladesh Time
শুক্রবার নভেম্বর ১৫, ২০১৯ ৪:১৮ পূর্বাহ্ন
Barisal News
Latest News
প্রচ্ছদ » কলাপাড়া, পটুয়াখালী, পটুয়াখালী সদর » কলাপাড়ায় জেলা পরিষদের সদস্যর বিরুদ্ধে সংখ্যালঘুর জমি দখলের অভিযোগ
২৫ জুলাই ২০১৯ বৃহস্পতিবার ৬:৩১:৩২ অপরাহ্ন
Print this E-mail this

কলাপাড়ায় জেলা পরিষদের সদস্যর বিরুদ্ধে সংখ্যালঘুর জমি দখলের অভিযোগ


কলাপাড়ায় জেলা পরিষদের সদস্যর বিরুদ্ধে সংখ্যালঘুর জমি দখলের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক, কলাপাড়া ॥ পটুয়াখালীর কলাপাড়ার একাধিক সংখ্যালঘু পরিবারের ভোগদখলে থাকা দীর্ঘ ৫৬ বছরের পৈত্রিক জমি জেলা পরিষদ সদস্য মো. আসলাম হাওলাদারসহ একটি জালিয়াত চক্র জবর দখল করে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ পাওয়াগেছে।

এব্যাপারে বৃহস্পতিবার দুপুরে কলাপাড়া প্রেস ক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে ভুক্তভোগী মনোজ কুমার দাস উল্লেখ করেন, ১৯৫৮ সাল থেকে পর্যায়ক্রমে ১০টি সাফ কবলা দলিল দ্বারা জমির পূর্ব মালিক নিলাও মগের কাছ থেকে আমার পিতা মৃতঃ মতিলাল দাস এবং আমার চাচা বিমল চন্দ্র দাস ২৫ একর ৪০ শতাংশ জমি ক্রয় করেন।

আমার পিতা ও চাচার মৃত্যুতে ওয়ারিশ সূত্রে উক্ত জমি ভোগদখলে থেকে কলাপাড়া সহকারী কমিশনার (ভূমি) অফিসে মিউটেশন ও জমাখারিজ করে ভোগদখলে আছি। উক্ত জমি জেলা পরিষদের সদস্য আসলাম হাওলাদারের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী এক সপ্তাহ আগে আমাদের চাষিদের জবি থেকে তুলে দিয়ে জবর দখল করে সাইনবোর্ড ঝুলিয়ে দিয়েছে।

লিখিত বক্তব্যে তিনি আরো জানায়, কলাপাড়ার উপজেলার বালিয়াতলী ইউনিয়নের ১৮ নং জে,এল, ছোটবালিয়াতলী মৌজার উক্ত জমি নিয়ে অংচেলা, থয়মং মাতুব্বর, অংচান মদবরসহ স্থানীয় একটি ভূমি দস্যুরা আমাদের নামে কলাপাড়া সহকারী জজ আদালত, পটুয়াখালী দেওয়ানী মোকদ্দমা ৫৮/২০০২ নং মামলা দায়ের করে। উক্ত মামলার রায় আমাদের অনুকুলে ২০০৮ সালের ৩ জুন উক্ত আদালতের রায়ের প্রেক্ষিতে ১১ জুন ডিক্রী প্রাপ্ত হই। ওই রায়ের বিরুদ্ধে টাইটেল স্যুট (দেওয়ানী) মোকদ্দমার বিরুদ্ধে ৫৩/২০০৮ মামলায় ইং ২০১৪ সনের ৮ জুলাই তারিখের আদেশ বলে ইং ২০০৮ সালের ৩ জুন তরিখের রায় এবং ইং ২০০৮ সালের ১১ জুন এর ডিক্রী আমাদের অনুকুলে বহাল রাখেন বিজ্ঞা আদালত। বর্তমানে অবৈধ কাগজপত্র তৈরী করার জন্য বিবাদীদের নামে জেলা যুগ্ম দায়রা আদালতে ২৪৯/২০১৯ মামলা দায়ের করেছি।

উক্ত মামলা চলমান থাকা অবস্থায় আমাদের উক্ত জমি জবর দখল করার জন্য ভূমি দস্যুরা বর্তমান জেলা পরিষদের সদস্য আসলাম হাওলাদারকে গডফাদার হিবে সম্মুখ ভাবে রেখে চলমান বর্ষা মৌসুমে আংশিক জমি চাষাবাদ করে আউশ ধানের চাষ করা হয়েছে। কিছু জমিতে বীজ বপন করা হয়েছে।

এমত অবস্থায় জেলা পরিষদের সদস্য আসলাম হাওলাদার কে সন্ত্রাসীদের গডফাদার হিসেবে উল্লেখ করে সংখ্যালঘু পরিবারের সদস্যরা সাংবাদিক সম্মেলনে আরো উল্লেখ করেন, আসলামের নেতৃত্বে মো. রুবেল সিকদার, মো. ফোরকান মৃধা, নিজাম গাজী, মো. হাবিব, অংচেরা, থয়মং মাতুব্বর, চান থান মাদবর, অংচান মাদবার, চোচাং মাদবর গত এক সপ্তাহ আগে আমাদেও জমি বর্গাইতকে জমিতে না যাওয়ার জন্য শাসিয়ে যায় খুনযখম করিবে বলে একই সঙ্গে আমাদের জমিতে পিলার ও সাইনবোর্ড স্থাপন করে তারা নিজেরাই। তাদের উদ্দেশ্যে ত্রাসের রাজত্ব সৃস্টি করিয়া সংখ্যালঘু হিন্দ সম্প্রদায়ের জমি জবর দখল করিয়া দেশ ছাড়া করিবার হুমকি প্রদর্শণ করে আসছে। বর্তমানে আমরা হিন্দু সম্পদায়ের পৈত্রিক সম্পত্তি থেকে প্রায় উচ্ছেদ হয়ে সর্বশান্ত হয়ে পরেছি।

বর্তমানে হিন্দু পরিবারগুলো চড়ম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। প্রধান মন্ত্রীর হস্তক্ষেপে আইন প্রয়েগকারী সংস্থার মাধ্যমে পৈত্রিক সম্পত্তি রক্ষা করার সুযোগ পেয়ে ভোগদখল করতে পারি তার ব্যবস্থার দাবি তোলেন। সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, জমির প্রকৃত মালিক মনোজ কুমার দাস, বিভাশ কুমার দাস, বিকাশ চন্দ্র দাস এবং এ্যাডভোকেট নাথুরাম ভৌমিক প্রমুখ।

সংখ্যা লঘুদের জমি দখল বিষয়ে জেলাপরিষদের সদস্য মো. আসলাম হাওলাদার সাংবাদিকদের জানায়, মনোজ কুমার দাস গংদের সাথে রাখাইনদের সঙ্গে বিরোধ চলে আসছিলো। সেই বিরোধের কারনে একটি সালিস বৈঠকে আমি উপস্থিত হয়ে জমির কাগজ-পত্র যাচাই বাছাই করে কথাবার্তা বলেছিলাম। আমার সেই কথা মনোজ কুমার দাস গংদের মনপুত না হওয়ায় আমাকে জড়িয়ে মিথ্যা ও ভিত্তিহীন অভিযোগ দায়ের করেছেন। সামাজিক ও রাজনৈতিক ভাবে হেও করার জন্য একটি চক্র এই সড়যন্ত্র করছে।

সম্পাদনা: বরি/প্রেস/মপ

শেয়ার করতে ক্লিক করুন:

আমাদের বরিশাল ডটকম -এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
(মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। amaderbarisal.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের মিল আছেই এমন হবার কোনো কারণ নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে amaderbarisal.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নেবে না।)
‘বুলবুল’র তাণ্ডবে বরিশালে কৃষকের মাথায় হাত
ভোলায় খোলা আকাশের নিচে শতাধিক পরিবার
ঘূর্ণিঝড়ের শঙ্কা কাটেনি
পটুয়াখালীতে ২৮১০ ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত, ২৭ ঘণ্টা পর বিদ্যুৎ-নেটওয়ার্ক সচল
বুলবুল কেড়ে নিল বরিশালের ৬ প্রাণ
Recent: Mayor Hiron Barisal
Recent: Barisal B M College
Recent: Tender Terror
Kuakata News

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
আমাদের বরিশাল ২০০৬-২০১৪

প্রকাশক ও নির্বাহী সম্পাদক: মোয়াজ্জেম হোসেন চুন্নু, সম্পাদক: রাহাত খান
৪৬১ আগরপুর রোড (নীচ তলা), বরিশাল-৮২০০।
ফোন : ০৪৩১-৬৪৫৪৪, ই-মেইল: [email protected]