AmaderBarisal.com Logo

কলাপাড়ার দিকে বাঁক নিচ্ছে ‘বুলবুল’, কমছে গতি-ক্ষমতা


আমাদেরবরিশাল.কম

৯ নভেম্বর ২০১৯ শনিবার ৭:৪৬:৪৮ অপরাহ্ন

ঘূর্ণিঝড়টি শুক্রবার (৮ নভেম্বর) দুপুর ১২টায় চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ৬৯৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ৬৪৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে, মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ৫৮৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ৫৭৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছিল। এটি আরও ঘণীভূত হয়ে উত্তর বা উত্তর-পূর্ব দিকে অগ্রসর হতে পারে। প্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’র অগ্রবর্তী অংশের প্রভাবে সমুদ্র বন্দরসমূহ, উত্তর বঙ্গোপসাগর ও বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় দমকা বা ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। প্রবল ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৭৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ১০০ কিলোমিটার, যা দমকা অথবা ঝোড়ো হাওয়ার আকারে ১২০ কিলোমিটার পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। প্রবল ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের কাছে সাগর খুবই বিক্ষুব্ধ রয়েছে।

অনলাইন ডেস্ক:: :কলকাতার সাগরদ্বীপ এবং বাংলাদেশের খেপুপাড়ার দিকে বাঁক নিচ্ছে ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’। ঘণ্টায় ১২০ কিমি গতিবেগে শনিবার দুপুর ২টার দিকে ওড়িশার পারাদ্বীপ থেকে দূরত্ব বাড়িয়ে ক্রমশই পশ্চিমবঙ্গের দিকে ধেয়ে আসছে। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

আবহাওয়া বিজ্ঞানীদের বরাত দিয়ে ভারতীয় এ সংবাদ মাধ্যমটি জানায়, শনিবার রাত ৮টা থেকে ১২টার মধ্যে কলকাতার সাগরদ্বীপ থেকে বাংলাদেশের পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার খেপুপাড়ার মধ্যে অতি ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড়টি আছড়ে পড়তে পারে। রাতেই স্থলভাগে আঘাত হানতে পারে। তবে এখনও নিশ্চিতভাবে কিছু বলছেন না আবহাওয়া বিজ্ঞানীরা।

সাগরদ্বীপ থেকে খেপুপাড়ার মধ্যে ঘূণিঝড় ‘বুলবুলের’ বিস্তার থাকলেও দিল্লির আবহাওয়া অফিস বলছে, ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ আঘাতহানার সম্ভাবনা রয়েছে ভারতের সুন্দরবন এলাকায়।

এদিকে শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতরের যুগ্ম পরিচালক আয়েশা খানম বলেছেন, বাংলাদেশের উপকূলের আরও কাছে চলে এসেছে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল। আজ মধ্যরাতে যেকোনো সময় আঘাত আনতে পারে এটি। ইতোমধ্যে উপকূলের ২১০ কিলোমিটারের মধ্যে প্রবেশ করেছে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল। উপকূলীয় অঞ্চলগুলোতে এর প্রভাব পড়েছে।

আয়েশা খানম বলেন, এখন বলা যেতে পারে ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের অগ্রভাগ উপকূলের কাছাকাছি অবস্থান করছে। বাতাসের গতিবেগ কিছুটা কমেছে।

সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ঘূর্ণিঝড় বুলবুল মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ২১০ কিলোমিটারের মধ্যে অবস্থান করছিল। পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ২৫৫ কিলোমিটার, কক্সবাজার থেকে ৪৩৫ ও চট্টগ্রাম থেকে ৪২৫ কিলোমিটারের মধ্যে অবস্থান করছে।

তিনি বলেন, ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৭৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের গতিবেগ ঘণ্টায় ১১০ কিলোমিটার বেগে প্রবাহিত হচ্ছে। যা ঝড়ো হাওয়ার আকারে ১৩০ কিলোমিটার পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। প্রতি ঘণ্টায় ১২ কিলোমিটার গতিতে উপকূলের দিকে ধেয়ে আসছে।

আবহাওয়াবিদ ড. মো. আবদুল মান্নান বলেন, ঘূর্ণিঝড়টি উপকূলের দিকে এসে আঘাত হানলে এর গতি কমতে থাকবে। সাধারণত ভূখণ্ডে বাধা পেয়ে এর গতি কমে আসে।

অধিদফতরের উপপরিচালক আয়শা খানম জানান, ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে পায়রা ও মোংলা সমুদ্রবন্দরে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। আর চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দরে ৯ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। কক্সবাজারে ৪ নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সর্তকতা সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। রাত সাড়ে ১০টার সময় ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের সর্বশেষ অবস্থান পরিস্থিতি জানানো হবে বলেও তিনি জানান।



সম্পাদনা: বরি/প্রেস/মপ


প্রকাশক: মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন তালুকদার    সম্পাদক: মো: জিয়াউল হক
সাঁজের মায়া (২য় তলা), হযরত কালুশাহ সড়ক, বরিশাল-৮২০০। ফোন : ০৪৩১-৬৪৫৪৪, মুঠেফোন : ০১৮২৮১৫২০৮০ ই-মেইল : [email protected]
আমাদের বরিশাল ডটকম -এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।