Current Bangladesh Time
বুধবার এপ্রিল ৮, ২০২০ ১১:১২ অপরাহ্ন
Barisal News
Latest News
২৪ নভেম্বর ২০১৯ রবিবার ৪:৩৪:২৮ অপরাহ্ন
Print this E-mail this

ভবন নির্মাণে বাঁশ ও কাঠ


দশমিনায় ভবন নির্মাণে বাঁশ ও কাঠ

অনলাইন ডেস্ক:::পটুয়াখালীর দশমিনায় টেকনিক্যাল ট্রেনিং সেন্টার (টি.টি.সি) ভবন নির্মাণ কাজে চুক্তির ব্যত্যয় ঘটিয়ে স্টিলের পরিবর্তে বাঁশ ও কাঠের সাটারিং (কংক্রিটের ঢালাই এ ব্যবহৃত অস্থায়ী কাঠামো) ব্যবহার করা হচ্ছে। একই অভিযোগ রয়েছে দেশের ৪০টি উপজেলায় ৪০টি কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের ভবন নির্মাণ কাজে।

বৈদেশিক শ্রমবাজারে প্রয়োজন অনুযায়ী দক্ষতা উন্নয়ন প্রশিক্ষণের মাধ্যমে বেকার যুবকদের কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি করা, বিদেশে কর্মসংস্থানের জন্য দক্ষ জনশক্তি তৈরি করা, দক্ষ জনশক্তি সরবরাহের মাধ্যমে শিল্প খাতে উৎপাদন বৃদ্ধি করা এবং সারাদেশে কারিগরি প্রশিক্ষণের মাধ্যমে সুযোগ ও কাজের ক্ষেত্র সম্প্রসারণ করা এ প্রকল্পের উদ্দেশ্য।

পটুয়াখালী গণপূর্ত বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, ২০১৮ সালের ১৪ আগস্ট গণপূর্ত বিভাগের সঙ্গে মেসার্স আমির ইঞ্জিনিয়ারিং করপোরেশন, এম এম বিল্ডার্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ার লিমিটেড, মের্সাস নিয়াজ ট্রের্ডাস ও জেভি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কাজ বাস্তবায়নে চুক্তি করে। ২০১৮ সালের ১৭ অক্টোবর টেকনিক্যাল ট্রেনিং সেন্টার (টি.টি.সি) দশমিনা পটুয়াখালী ভবন নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন করেন সাবেক বস্ত্র প্রতিমন্ত্রী ও সাবেক সংসদ সদস্য আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইন।

প্রকল্পের আওতায় ছয়তলা পাইল ভিতের উপর পাঁচতলা একাডেমিক ভবন, তিন তলা ডরমেটরি ভবন, চার তলা ভবন (প্রিন্সিপাল ভাইস প্রিন্সিপাল অনারি পরিদর্শকদের জন্য ডরমেটরি) পাম্প হাউজ, সাব-স্টেশন, গ্যারেজ, ভূগর্ভস্থ পানি সংরক্ষণাগার, ডিপ টিউবওয়েল, কম্পাউন্ডার ড্রেন, বাউন্ডারি ওয়াল, অ্যাপ্রোচ রোড, গার্ড সেড ইত্যাদি অবকাঠামো নির্মাণ করা হচ্ছে। প্রকল্প ব্যয় ২১ কোটি ৬৬ লাখ ৯৯ হাজার ৪৩৩ টাকা ৪৫ পয়সা।

প্রকল্প এলাকায় ঘুরে দেখা গেছে, ৩০ জন শ্রমিক ভিন্ন কাজ করছে। প্রকল্প এলাকায় নিম্নমানের ইট, পাথরের স্তুপ। এছাড়া প্রকল্প এলাকায় ভবন নির্মাণের চুক্তির ব্যত্যয় ঘটিয়ে স্টিলের পরিবর্তে বাঁশ ও কাঠের সাটারিং (কংক্রিটের ঢালাই এ ব্যবহৃত অস্থায়ী কাঠামো) ব্যবহার করা হচ্ছে। কোথাও আবার খোলা অবস্থায় পরে রয়েছে বাঁশ ও কাঠের সাটারিং।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক গণপূর্ত বিভাগের এক কর্মকর্তা জাগো নিউজকে বলেন, কাজের নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার হবে না কেন? ঢাকা থেকে প্রকল্প পরিচালক গেলে তাদের বড় অংকের টাকা দিতে হয়। প্রকল্প এলাকা ভ্রমণ শেষ করে কুয়াকাটায় ভ্রমণে যান তারা। তাদের থাকা-খাওয়া, ঢাকা যাওয়ার সময় বড় মাছ দিতে হয়। এজন্য ঠিকাদার নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার করে টাকা উঠিয়ে নেয়।

প্রকল্প এলাকায় কর্মরত শ্রমিক রফিক মিয়া বলেন, ঢালাই ভালো হয়। ঢালাইতে স্টিলের পরিবর্তে বাঁশ ও কাঠের সাটারিং ব্যবহার করা হয়। ইটের মান অনেক খারাপ গুরা গুরা হয়ে যায়।

প্রকল্পের দায়িত্বে থাকা মেসার্স আনজুম ট্রেডার্সের ম্যানেজার মো. সোহেল শরীফ বলেন, চারটি পাথর, তিনটি বালু, একটি সিমেন্ট দিয়ে ঢালাই দেয়া হয়। সেন্টারিং এ স্টিল সার্টার, প্লেনসিট, কাঠ ও বাঁশ, পলিথিন ব্যবহার হচ্ছে। এছাড়া গাথুঁনিতে ইট ব্যবহার করা হয়।

প্রকল্পের দায়িত্বে থাকা পটুয়াখালী গণপূর্ত বিভাগের উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো. মনিরুজ্জামান বলেন, আমি গত পরশুদিন প্রকল্প এলাকা পরিদর্শন করে এসেছি। তখন নিম্নমানের কোনো ইট দেখিনি। প্রকল্প এলাকায় ভবন নির্মাণের চুক্তির ব্যত্যয় ঘটিয়ে স্টিলের পরিবর্তে বাঁশ ও কাঠের সাটারিং ব্যবহার করা হয় কেন এমন প্রশ্নের তিনি কোনো উত্তর দেননি। -জাগো নিউজ

সম্পাদনা: বরি/প্রেস/মপ

শেয়ার করতে ক্লিক করুন:

আমাদের বরিশাল ডটকম -এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
(মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। amaderbarisal.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের মিল আছেই এমন হবার কোনো কারণ নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে amaderbarisal.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নেবে না।)
ব্রিজ ভাঙায় ভাগ্য খুলছে জনপ্রতিনিধিদের!
বাউফলে ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে চলছে পাঠদান
কৃষকদের হয়রানি করলে ছাড় নয়: খাদ্যমন্ত্রী
রিফাত হত্যা : ভিডিও ডাউনলোডের পেন ড্রাইভ সনাক্ত
সাগর-রু‌নির হত্যার তদন্তে পু‌লি‌শের ব্যর্থতা বলা যা‌বে না: আইজিপি
Recent: Mayor Hiron Barisal
Recent: Barisal B M College
Recent: Tender Terror
Kuakata News

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
আমাদের বরিশাল ২০০৬-২০২০

প্রকাশক ও নির্বাহী সম্পাদক: মোয়াজ্জেম হোসেন চুন্নু, সম্পাদক: রাহাত খান
৪৬১ আগরপুর রোড (নীচ তলা), বরিশাল-৮২০০।
ফোন : ০৪৩১-৬৪৫৪৪, ই-মেইল: hello@amaderbarisal.com