Current Bangladesh Time
মঙ্গলবার সেপ্টেম্বর ২, ২০১৪ ৭:৫৮ অপরাহ্ন
Barisal News
Latest News
প্রচ্ছদ » গৌরনদী, বরিশাল » গৌরনদী জেলা বাস্তবায়ন সংগ্রাম পরিষদ নিয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া
২৯ জুন ২০১২ শুক্রবার ৯:০৫:২৭ অপরাহ্ন
Print this E-mail this

গৌরনদী জেলা বাস্তবায়ন সংগ্রাম পরিষদ নিয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া


বিএম রিপন, গৌরনদী :: বরিশালের গৌরনদী উপজেলাকে জেলা ঘোষনার দাবিতে নবগঠিত গৌরনদী জেলা বাস্তবায়ন সংগ্রাম পরিষদ নিয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। জেলার দাবিতে গৌরনদীর আপামর জনগণের দীর্ঘ দিনের আন্দোলন সংগ্রামের নেতৃত্বকে কুক্ষিগত করার পায়তারা দেখে ক্ষুব্ধ হয়েছে এলাকার রাজনীতিবিদ, জনপ্রতিনিধি, মুক্তিযোদ্ধা, সুশীল সমাজ ও নানা শ্রেণী পেশার প্রতিনিধিসহ সচেতন নাগরিকরা। গৌরনদী জেলা বাস্তবায়ন আন্দোলনকে স্থবির করতেই জেলা বাস্তবায়ন সংগ্রাম পরিষদ কমিটির নামে পকেট কমিটি ঘোষনা করা হয়েছে বলে অভিমত প্রকাশ করেছেন সকল গোরনদীবাসী।

মূলত, বঙ্গবন্ধুর শাসন আমলে তৎকালীন মন্ত্রী ও কৃষক নেতা শহীদ আবদুর রব সেরনিয়াবাত বরিশালের গৌরনদীকে মহাকুমায় উন্নীত করার উদ্যোগ গ্রহণ করেন। ৭৫ এর ১৫ আগষ্টের কালোরাতে বঙ্গবন্ধু পরিবারের সাথে তিনি শহীদ হলে তার এ উদ্যোগ থমকে যায়। শহীদ আবদুর রব সেরনিয়াবাতের ওই স্বপ্নকে বাস্তবায়েনে উদ্যোগী হন গৌরনদীর সকল রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ। এরই ধারাবাহিকতায় ১৯৮১ সালের ১১ মে গৌরনদী কলেজ মাঠে রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের উপস্থিতিতে এক জনসভায় গৌরনদীবাসীর পক্ষে তৎকালীন প্রতিমন্ত্রী শুনীল গুপ্ত গৌরনদীকে মহাকুমায় উন্নীত করার জন্য দাবি করেন। রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান তার এ দাবিকে পুরনের আশ্বাস দিয়ে যাওয়ার ২০ দিনের মাথায় চট্রগ্রামে শহীদ হন। এ কারণে ওই সময়ও বঞ্চিত হয় গৌরনদী বাসী।

৯৬ সালে জননেত্রী শেখ হাসিনার শাসন আমলে জাতীয় সংসদের চীফ হুইপ আলহাজ্ব আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ্‌ তার পিতার স্বপ্ন বাস্তবায়নে গৌরনদীকে (সাবেক মহাকুমা) জেলায় উন্নীত করার স্বপ্ন নিয়ে গৌরনদী-আগৈলঝাড়ার অবকাঠামোগত ব্যাপক উন্নয়ন করেন। মন্ত্রী ও রাজনীতিবিদ পর্যায়ের এ উদ্যোগের পাশাপাশি গৌরনদীর আপামর জনগণও বিভিন্ন সময়ে গৌরনদীকে জেলা ঘোষনার তাদের প্রানের দাবিকে বাস্তবায়নে রাজপথে আন্দোলন সংগ্রাম করেছে। জেলার দাবিতে ১৯৯২ সালে সরকারী গৌরনদী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের তৎকালীন অধ্যক্ষ জিএম হালিমকে আহ্বায়ক করে স্থানীয় সকল রাজনৈতিক দল, জনপ্রতিনিধি, মুক্তিযোদ্ধা, সুশীল সমাজ. ও নানা শ্রেণী পেশার প্রতিনিধিসহ সচেতন নাগরিকদের নিয়ে গৌরনদী জেলা বাস্তবায়ন সংগ্রাম কমিটির নেতৃত্বে জেলার দাবিতে গৌরনদীতে দৃর্বার আন্দোলন গড়ে তোলা হয়। খালেদা জিয়ার শাসন আমলে তৎকালীন কয়েকজন সিনিয়র মন্ত্রীর নেতিবাচক মনোভাবের কারণে তখন গৌরনদী বাসীর ও আন্দোলন সফলতা অর্জন করেনি। ফলে থেমে যায় গৌরনদীকে জেলা ঘোষনার সকল আন্দোলন কর্মসুচী। স্থবির হয়ে পড়ে গৌরনদী জেলা বাস্তবায়ন সংগ্রাম কমিটির কার্যক্রম।

গত ২৫ জুন বরিশাল-১ (গৌরনদী-আগৈলঝাড়া) আসনের এমপি ও বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক অ্যাডভোকেট তালুকদার মোঃ ইউনৃস জাতীয় সংসদে বরিশাল জেলাকে দ্বিখন্ডিত করে গৌরনদীসহ পাশ্ববর্তী ছয় উপজেলা নিয়ে নতুন একটি জেলা করার প্রস্তাব উত্থাপন করেন। এ প্রস্তাব উত্থাপনের পর পরই আবার নতুন করে গৌরনদী জেলার স্বপ্ন উঁকি দিয়ে উঠেছে গৌরনদী বাসীর মনে। ফলে আবার সংগঠিত হওয়ার ও দাবি আদায়ে প্রয়োজনে রাজপথে নামার জন্য যখন স্থানীয় বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, জনপ্রতিনিধি, মুক্তিযোদ্ধা, সুশীল সমাজ. ও নানা শ্রেণী পেশার প্রতিনিধিসহ সচেতন নাগরিকদের নিয়ে একটি ঐক্যবদ্ধ প্লাটফর্ম তৈরি করার জন্য নেতৃবৃন্দ পর্যায়ে যোগাযোগ চলছিল, ঠিক সেই মুহুর্তে গত ২৭ জুন গৌরনদী প্রেসক্লাবে একটি সভা অনুষ্ঠানের দাবি করে স্থানীয় দু’জন সংবাদকর্মী গৌরনদী জেলা বাস্তবায়ন সংগ্রাম পরিষদ নামে একটি সংগঠন তৈরির ঘোষনা দিয়ে ওই সংগঠনের উদ্যোগে ২৮ জুন গৌরনদীতে একটি মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করে। ওই কর্মসুচীতে মাত্র ২৫/৩০ জন লোক অংশ নেয়। যা দেখে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে গৌরনদীর বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও নানান শ্রেণী পেশার লোকজন। ওই দুই সংবাদকর্মীর এ কর্মকান্ডকে ধিক্কার জানিয়ে তাদের কেউ কেউ এটাকে নিজেদের নাম জাহির করার চেষ্টা, মিডিয়া ট্রাইল দিয়ে সামনে আসার পায়তারা, পকেট কমিটি বানিয়ে নেতা হওয়ার ঘৃন্য প্রচেষ্টা বলে অভিহিত করেছেন।

এদিকে গৌরনদী প্রেসক্লাবের সভাপতি মোঃ জামাল উদ্দিন আমাদের বরিশাল ডটকমকে বলেন, ওই দিন গৌরনদী প্রেসক্লাবে কোন সভা হয়নি। অথচ আমার সভাপতিত্বে সভাটি হয়েছে বলে সংবাদপত্রে রিপোর্ট করা হয়েছে। আমি এর তীব্র নিন্দা জানাই।

বরিশাল-১ আসনের এমপি অ্যাডভোকেট তালুকদার মোঃ ইউনৃস বলেন, গৌরনদীকে জেলায় উন্নীত করাতে যে আন্দোলন গড়ে উঠবে তাতে দল, মত নির্বিশেষে প্রস্তাবিত জেলার আপামর জনতার নিয়ে কমিটি গঠিত হওয়া উচিত। আন্দোলনটি হবে সার্বজনিন। রাজনীতিবিদ, জনপ্রতিনিধি, মুক্তিযোদ্ধা, সুশীল সমাজ, বুদ্ধিজীবি, শিক্ষক ও নানা শ্রেণী পেশার প্রতিনিধি এ আন্দোলনের সাথে যুক্ত থাকা উচিৎ।

গৌরনদী উপজেলা চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগ নেতা আলহাজ্ব মোঃ শাহআলম খান বলেন, জেলার দাবিতে গঠিত কমিটি সম্পর্কে আমি কিছুই জানিনা। তবে যারা কমিটি করেছে তারা হীনমন্নতার পরিচয় দিয়েছে। বৃহৎ স্বার্থ আদায়ে ক্ষুদ্র পরিসরে কিছু করলে সফল হওয়া যায়না।

কমিটি প্রসঙ্গে তীব্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে গৌরনদী পৌর মেয়র ও উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক মোঃ হারিছুর রহমান হারিছ আমাদের বরিশাল ডটকমকে বলেন, রাতের আধারে জেলার দাবির পক্ষে পকেট কমিটি করে মিডিয়া ফোকাসিং নিয়ে কেউ কেউ নিজেকে নেতার আসনে প্রতিষ্ঠিত করতে চাইছে। আমি এ ঘৃন্য কর্মকান্ডের তীব্র নিন্দা জানাই।

গৌরনদী উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও বরিশাল সদর উত্তর জেলা যুবদলের সাধারন সম্পাদক মোঃ বদিউজ্জামান মিন্টু বলেন, গৌরনদীকে জেলা করার আন্দোলনে নেতৃত্ব দেয়ার মত অনেক যোগ্যব্যক্তি গৌরনদীতে রয়েছেন। নিজে নেতা হওয়ার জন্য সুযোগ বুঝে একটি পকেট কমিটি করে আন্দোলনের নামে মিডিয়া ট্রায়াল দিলেই নেতা হওয়া বা দাবি পূরন করা যাবেনা।

অগৈলঝাড়া উপজেলা জাতীয় পার্টির সাধারন সম্পাদক ও আগৈলঝাড়া প্রেসক্লাবের সভাপতি সরদার হারুন রানা বলেন, গৌরনদীকে জেলা করার দাবিতে ক্ষুদ্র পরিসরে একটি পকেট কমিটি করে এর নেতৃত্ব কুক্ষিগত করা কারো কাম্য হতে পারেনা। সাগরে ডিঙ্গী নৌকা নিয়ে মাছ ধরতে গেলে যেমন সফল হওয়া যায়না তেমনি ক্ষুদ্র পরিসরে কমিটি করে জেলার দাবির আন্দোলন করলে সেখানেও সফল হওয়া যাবেনা।

অগৈলঝাড়া উপজেলা গৈলা ইউপি চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা মোঃ আবুল হোসেন লাল্টু বলেন, গৌরনদীকে জেলা করার দাবিতে আন্দোলন গড়ে তোলার জন্য যারা পকেট কমিটি করেছেন, আমি তাদের নিন্দা জানাই। সকল শ্রেণী পেশার মানুষকে সাথে নিয়ে  এ কমিটি গঠন ও নেতৃত্ব নির্বাচন করার জন্য এমপি অ্যাডভোকেট তালুকদার মোঃ ইউনুস সাহেবের  প্রতি আমি জোর দাবি জানাই।

-
(আমাদের বরিশাল ডটকম/গৌরনদী/বিএ/তাপা)

সম্পাদনা: সেন্ট্রাল ডেস্ক

শেয়ার করতে ক্লিক করুন:

আমাদের বরিশাল ডটকম -এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
(মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। amaderbarisal.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের মিল আছেই এমন হবার কোনো কারণ নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে amaderbarisal.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নেবে না।)
দপ্তরের ঠেলাঠেলিতে বন্ধের পথে ভোলা-লক্ষীপুর ফেরি
জেলেদের নিরাপত্তার আবেদন মন্ত্রনালয়ে
স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর মৃত্যুদণ্ড
রাজাপুরে দোকানসহ কালভার্ট ও সড়ক নদীগর্ভে
ট্রলারের পাখায় আহত জেলের মৃত্যু
Recent: Mayor Hiron Barisal
Recent: Barisal B M College
Recent: Tender Terror
Kuakata News

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
আমাদের বরিশাল ২০০৬-২০১৪

প্রকাশক: মোয়াজ্জেম হোসেন চুন্নু, নির্বাহী সম্পাদক: সুশান্ত ঘোষ
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: মোঃ জিয়াউল হক
৪৬১ আগরপুর রোড (নীচ তলা), বরিশাল-৮২০০।
ফোন : ০৪৩১-৬৪৫৪৪, ই-মেইল: hello@amaderbarisal.com