AmaderBarisal.com Logo

বাউফলে ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে চলছে পাঠদান


আমাদেরবরিশাল.কম

১২ ফেব্রুয়ারী ২০২০ বুধবার ৫:৫৮:৩৯ অপরাহ্ন

বাউফলে ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে চলছে পাঠদান

কৃষ্ণ কর্মকার. বাউফল :::মৃত্যু ঝুঁকি নিয়ে প্রত্যহ শিক্ষা কার্যক্রম চলছে পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার ৭৮ নং কোটপাড় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের। ২০১৮ সালে ভবনটি পরিত্যাক্ত ঘোষনা করা হলেও শ্রেণি সংকটের কারনে শিক্ষকরা বাধ্য হয়েই পাঠদান করছেন ওই ঝুঁিকপূর্ণ ভবনেই। এ কারনেই কমে গেছে বিদ্যালয়ে শিক্ষর্থীর সংখ্যা।

সরজমিনে দেখা যায়, ১৯৩৬ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় ৭৮ নং কোটপাড় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। ১৯৫০ সালে নির্মাণ করা হয় বর্তমান ভবনটি। এর পড়ে ভবনটি কয়েক দফায় সংস্কার হলেও বর্তমানে তার অবস্থা খুবই নাজুক। ভবনের ছাদ ও দেয়াল থেকে পলেস্তারা খসে পড়ছে। কক্ষের মেঝে দেবে গিয়ে সৃষ্টি হয়েছে গর্তের। রড বের হয়ে আছে ছাদ ও পিলারের। ভবন সংকটের কারনে ওই ঝুঁিকপূর্ণ ভবনেই চলছে পাঠদান।

বাউফলে ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে চলছে পাঠদান

বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী উম্মেহাবিবা তৌরি, আলিফা, ইয়ামুন অভিন্ন বলেন,‘ছাদ আর দেয়ালের প্লাস্টার প্রায়ই খসে খসে পড়ে। ক্লাস করতে ভয় হয়।’

বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্য শামসুন নাহার শিল্পী বলেন, ঝুঁকিপূর্ণ ভবনের কারনে শিক্ষর্খীরা বিদ্যালয়ে আসতে চায় না। বর্ষাকালে বৃষ্টি হলে ভবনের প্রতিটা কক্ষের মেঝেতে পানি জমে যায়। তখন বিদ্যালয়ে উপস্থিতির হার কমে যায়। এখানে একটি ভবনের প্রয়োজন অতীব জরুরী।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নাজনিন সুলতানা বলেন, বিদ্যালয়ে সাতজন শিক্ষকসহ বর্তমান শিক্ষার্থীর সংখ্যা ১৭০জন। পাঠদান চলে দুই সিফটে। তারপড়েও শ্রেণি সংকটের কারনে ঝুঁিকপূর্ণ ভবনে পাঠদান করাতে হয়। ‘যে কোনো সময় ভবন ধ্বসে যেতে পারে। ২-৩ বছরেও ভবন মেরামতের বরাদ্ধ মেলেনি। বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তপক্ষকে একাধিকবার অবহিত করেছি।

উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা রিয়াজুল হক বলেন, ‘দুই-তিন বছর ধরে চাহিদা দেওয়া হচ্ছে। এ বছরও ওই বিদ্যালয়ের ভবনের চাহিদা দিয়ে প্রয়োজনীয় উদ্দ্যেগ গ্রহণে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে।’



সম্পাদনা: বরি/প্রেস/মপ


প্রকাশক: মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন তালুকদার    সম্পাদক: মো: জিয়াউল হক
সাঁজের মায়া (২য় তলা), হযরত কালুশাহ সড়ক, বরিশাল-৮২০০। ফোন : ০৪৩১-৬৪৫৪৪, মুঠেফোন : ০১৮২৮১৫২০৮০ ই-মেইল : [email protected]
আমাদের বরিশাল ডটকম -এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।