Current Bangladesh Time
বৃহস্পতিবার আগস্ট ১৩, ২০২০ ২:২৬ পূর্বাহ্ন
Barisal News
Latest News
প্রচ্ছদ » আমতলী, বরগুনা » হারিয়ে যাওয়ার ৮ বছর পর মায়ের কোলে
৪ জুলাই ২০২০ শনিবার ৮:৩১:১৭ অপরাহ্ন
Print this E-mail this

হারিয়ে যাওয়ার ৮ বছর পর মায়ের কোলে


জাকির হোসেন, আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধিঃ

আমতলী উপজেলার টেপুরা গ্রামে হারয়ে যাওয়ার ৮ বছর পর মাইদুল ইসলাম সুজন (১৮) নামে এক কিশোর মায়ের কোলে ফিরে এসছে। দীর্ঘ ১০ বছর পর হারিয়ে যাওয়া ছেলেকে ফিরে পেয়ে পরিবারে বইছে আনন্দের বন্যা। হারিয়ে যাওয়ার ৮ বছর পর মা ছেলের মিলন মেলায় শুক্রবার রাত ১০টায় পটুয়াখালী সদর থানায় এক আবেগঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়।

পারিবারিক সূত্রে জানাগেছে, আমতলী উপজেলার হলদিয়া ইউনিয়নের টেপুড়া গ্রামের মুতিন মুন্সির কন্যা বিলকিস বেগমের সাথে ১৯৯৭ সালে পার্শ্ববর্তী কলাপাড়া উপজেলার চম্পাপুর গ্রামের রুহুল আমিন খন্দকারের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই যৌতুকের জন্য স্বামী রুহুল আমি বিলকিসকে শারীরিক ও মানষিক নির্যাতন করতো। ইতিমধ্যে তাদের কোল জুড়ে আসে ছেলে মাইদুল ইসলাম সুজন ও মেয়ে তামান্না। কিন্তু ছেলে-মেয়ে বাবা রুহুল আমিন খন্দকারের মন গলাতে পারেনি। বিয়ের সাত বছরের মাথায় বিলকিসের সাথে তার সম্পর্কচ্ছেদ হয়। অসহায় বিলকিস ছেলে মাইদুল ইসলাম সুজন ও মেয়ে তামান্নাকে নিয়ে ঢাকায় চলে যান। ছেলে সুজনকে একটি হাফিজি মাদরাসায় ভর্তি করে দেন তিনি। পরে তিনি একটি গার্মেন্টের কাজ নেয় বিলবিস। কষ্টে চলে তাদের দিনকাল।

২০১২ সালের ৬ ফেব্রুয়ারী তুরাগ থানার ভাড়া বাসা থেকে মোবাইলে লোড দিতে গিয়ে পথ হারিয়ে সদর ঘাটে আসে। ওইখানে দেখা হয় পটুয়াখালীর মকবুুল হোসেন মাষ্টারের সাথে। তিনি মাইদুলকে তার বাসায় নিয়ে আসেন। মাষ্টারের আদর সোহাগে ভুলে যান মা ও পরিবারের কথা। মা বিলকিস ছেলেকে খুজে তন্নতন্ন করেও কোন হদিস পায়নি। একমাত্র ছেলেকে হারিয়ে পাগলপ্রায় বিলকিস। পরে ওই বছর ২৬ ফেব্রুয়ারী ঢাকার তুরাগ থানায় তার মা বিলকিস বেগম সাধারণ ডায়েরী করেন। ছেলেকে হারিয়ে মা বিলকিস মেয়ে তামান্নাকে নিয়ে বাবার বাড়ীতে চলে আসেন। খেয়ে না খেয়ে কোন মতে বাবার বাড়ীতে চলে তার জীবন কাল।

এদিকে গত চার বছর আগে মকবুল মাষ্টারের ছেলে মেহেদী হাসান সুজনকে পটুয়াখালী জজ কোর্টের সামনে তার প্রিয়জন ফটোস্ট্যাটের দোকানে কাজ দেয়। ওই দোকানে সুজন চার বছর ধরে কাজ করছে। এর মধ্যে পটুয়াখালীতে তার বেশ বন্ধু-বান্ধব জুটে যায়। ওই বন্ধুদের মধ্যে হাফেজ মোঃ মোস্তফা ও মাসুদের সাথে বেশ ঘনিষ্টতা হয় তার। তাদের কাছে সুজন সব খুলে বলে। ওই দুই বন্ধু মিলে সুজনের পবিরারের সন্ধান করতে থাকে। বন্ধু মোস্তফা তার বড় ভাই ইসলামী আন্দোলনের পটুয়াখালী জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক আরআইএম অহিদুজ্জামানের সাথে এ বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করে। পরে অহিদুজ্জামান আমতলী উপজেলার কাঁঠালিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ও সাবেক ইউপি সদস্য মো. আবু ছালেহ’র সাথে যোগাযোগ করে। এই দু’জনে মিলে সুজনের সমুদয় পরিচয় উদঘাটন করেন। পরে সুজনকে তার মায়ের কাছে ফিরিয়ে দিতে অহিদুজ্জামান ও শিক্ষক আবু ছালেহ পটুয়াখালী থানার দ্বারস্থ হন। শুক্রবার রাত ১০ টার দিকে পটুয়াখালী সদর থানায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ মাহফুজুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মুকিত হাসান, সদর থানার ওসি আখতার মোর্শ্বেদের উপস্থিতে মাইদুল ইসলাম সুজনকে আনুষ্ঠানিকভাবে তার মা বিলকিস বেগমের হাতে তুলে দেন। এ সময় মা ও ছেলের মিলন মেলায় এক হৃদয় বিদারত দৃশ্যের অবতারনা হয় এবং উপস্থিত সকলে আবেগপ্লুত হয়ে পড়েন।

ইসলামী আন্দোলনের পটুয়াখালী জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক আরআইএম অহিদুজ্জামান বলেন, হারিয়ে যাওয়া ছেলে সুজনকে তার মায়ের হাতে তুলে দিতে পারায় অনক ভাল লাগছে। কান্নাজরিত কন্ঠে মা বিলকিস বেগম বলেন, মোর স্বামী নেই। মুই পোলাডারে হারাইয়্যা মরার মতো বাইছ্যা আল্লাম। আল্লায় মোর পোলাডারে মোর কাছে ফিরাইয়্যা দেছে। মুই আল্লার ধারে কোটি শুকরিয়া জানাই।

পটুয়াখালী জজ কোর্ট এলাকার প্রিয়জন কম্পিউটারের পরিচালক মো. মেহেদী হাসান বলেন, ২০১২ সালে বাবা মাইদুলকে ঢাকায় সদর ঘাটে পাই। পরে বাবা বাড়ীতে নিয়ে আসে। ওই সময় থেকে মাইদুল আমার কাছে বড় হয়েছে। কিন্তু ওই সময় মাইদুল বাবা-মায়ের নাম ছাড়া আর কিছু বলতে পারেনি। গত ৮ বছর আমি তাকে নিজের ছেলের মতই মানুষ করেছি। এখন সে তার পরিবার ফিরে পেয়েছে। এটা আমার কাছে অনেক পাওয়া।
মাইদুল ইসলাম সুজন বলেন, আট বছর পরিবার থেকে বিছিন্ন ছিলাম। এখন পরিবারকে ফিরে পেয়ে আমি আনন্দিত। তবে তিনি আরো বলেন, মকবুল দাদার জন্যই আজ আমি একটা কিছু করতে পেরেছি। তার পরিবার আমাকে ভালোবেসে মানুষ করেছে। তাদের ঋণ শোধ করার নয়।
পটুয়াখালী থানার ওসি আখতার মোর্শ্বদ বলেন, ঢাকার সাধারণ ডায়েরীর সুত্র ধরে মাইনুলকে সনাক্ত করে তার পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দিয়েছি।

সম্পাদনা: আমাদের বরিশাল ডেস্ক

শেয়ার করতে ক্লিক করুন:

আমাদের বরিশাল ডটকম -এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
(মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। amaderbarisal.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের মিল আছেই এমন হবার কোনো কারণ নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে amaderbarisal.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নেবে না।)
বরিশাল নগরে ডিবি পুলিশের ‘ব্লক রেইড’
যেকোন দুর্যোগে বাংলাদেশের পাশে থাকবে ভারত: রীভা গাঙ্গুলি
বেপরোয়া আন্তঃজেলা-দূরপাল্লার বাস! স্বাস্থ্যবিধি মানার নেই কোন সদিচ্ছা
সিলেটে আটক জঙ্গির বাসায় মিলল শক্তিশালী বোমা, আরেকটি বাসায় চলছে অভিযান
বিশ্বে প্রথম করোনার ভ্যাকসিন অনুমোদন দিল রাশিয়া
Recent: Mayor Hiron Barisal
Recent: Barisal B M College
Recent: Tender Terror
Kuakata News

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
আমাদের বরিশাল ২০০৬-২০২০

প্রকাশক ও নির্বাহী সম্পাদক: মোয়াজ্জেম হোসেন চুন্নু, সম্পাদক: রাহাত খান
৪৬১ আগরপুর রোড (নীচ তলা), বরিশাল-৮২০০।
ফোন : ০৪৩১-৬৪৫৪৪, ই-মেইল: hello@amaderbarisal.com