AmaderBarisal.com Logo

‘উজানের দেশগুলোতে কয়েকদিন ভারী বৃষ্টি না হলে নদীর পানি কমবে’


আমাদেরবরিশাল.কম

৩১ জুলাই ২০২০ শুক্রবার ৯:৩৩:২২ অপরাহ্ন

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

দেশে চলমান বন্যা পরিস্থিতি প্রসঙ্গে পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অব.) জাহিদ ফারুক শামীম বলেছেন, দেশে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হচ্ছে। অভ্যন্তরীণ নদীর পানি স্থিতিশীল থাকলেও ধীরে ধীরে বঙ্গোপসাগরে পানি নেমে যাচ্ছে।

আগামী কয়েক দিন উজানের দেশ ভারত, নেপাল ও ভুটানে ভারী বৃষ্টিপাত না হলে বাংলাদেশের নদ-নদীর পানি কমবে।  

শুক্রবার (৩১ জুলাই) বেলা ১২টায় বরিশাল সদর উপজেলার কীর্তনখোলা ও আড়িয়ালখাঁ নদীর ভাঙনকবলিত বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় এ আশাবাদ জানান পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী।

প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, নদ-নদীর পানি নেমে গেলে স্বস্তি ফিরে আসবে। বর্তমানে দেশের ৬৪ জেলায় ৪৩২টি খাল খননের কার্যক্রম চলছে। অবৈধ দখলদার উচ্ছেদসহ নানা কারণে এসব খাল খনন কার্যক্রম বিলম্বিত হয়েছে। কিন্তু আগামীতে খাল খনন শেষ হলে সারা দেশে ৫শ’ নদী খননের কাজ শুরু হবে। ওই কার্যক্রম শেষ হলে বন্যার সময় নদ-নদীতে পানির ধারণ ক্ষমতা আগের চেয়ে বাড়বে। তখন বন্যায় পানি বাড়লেও প্লাবনের তীব্রতা বর্তমানের চেয়ে কমবে।  

এর আগে সকালে স্পিডবোটযোগে কীর্তনখোলা নদীর ভাঙনকবলিত সদর উপজেলার চরবাড়িয়া, চরমোনাই ও লামছড়ি এবং আড়িয়ালখাঁ নদীর কালীগঞ্জ এলাকা পরিদর্শন করেন জাহিদ ফারুক শামীম। এ সময় নদী ভাঙনে দিশেহারা মানুষ দ্রুত ভাঙন প্রতিরোধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য প্রতিমন্ত্রীর কাছে আবেদন জানান। প্রতিমন্ত্রীও এসময় পানি উন্নয়ন বোর্ডের টেকনিক্যাল কমিটির সার্ভে রিপোর্ট পাওয়ার পর প্রয়োজন অনুযায়ী জিও ব্যাগ পেলে জরুরি ভিত্তিতে এবং প্রকল্পের মাধ্যমে স্থায়ী ভিত্তিতে ভাঙন প্রতিরোধে কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেন।

এসময় পানি উন্নয়ন বোর্ড দক্ষিণাঞ্চল জোনের প্রধান প্রকৌশলী মো. হারুন-অর রশিদ ও সদর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মাহবুবুর রহমান মধুসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।



সম্পাদনা: আমাদের বরিশাল ডেস্ক


প্রকাশক: মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন তালুকদার    সম্পাদক: মো: জিয়াউল হক
সাঁজের মায়া (২য় তলা), হযরত কালুশাহ সড়ক, বরিশাল-৮২০০। ফোন : ০৪৩১-৬৪৫৪৪, মুঠেফোন : ০১৮২৮১৫২০৮০ ই-মেইল : hello@amaderbarisal.com
আমাদের বরিশাল ডটকম -এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।