AmaderBarisal.com Logo

আমতলীতে বাড়ী ছাড়া করতে গৃহবধুকে কুপিয়ে জখম


আমাদেরবরিশাল.কম

১০ ফেব্রুয়ারী ২০২১ বুধবার ৫:৩৭:৪০ অপরাহ্ন

জাকির হসেন,আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধিঃ

আমতলী উপজেলার উত্তর টিয়াখালী গ্রামে মায়া বেগম (৩০) নামে এক গৃহবধূকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে দেবর মোহন মোল্লা।ওই গৃহবধুকে বাড়ি ছাড়া করার জন্য এ হামলা করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

আহত ওই গৃহবধুকে রাতেই স্বজনরা উদ্ধার করে প্রথমে আমতলী হাসপাতালে ভর্তি করে। অবস্থা গুরুতর হওয়ায় পরে ওই রাতেই তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য পটুয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জানাগেছে, উপজেলার উত্তর টিয়াখালী গ্রামের মানষিক প্রতিবন্ধি খোকন মোল্লা ও তার ছোট ভাই মোহন মোল্লা একই বাড়ীতে বসবাস করে আসছে। মানষিক প্রতিবন্ধি খোকনের সম্পত্তির উপর ছোট ভাই মোহন মোল্লার নজর পড়ে। গত ৩ বছর ধরে বড় ভাইয়ের পরিবারকে বাড়ী থেকে তাড়ানোর জন্য বিভিন্ন কৌশল করে আসছে মোহন মোল্লা ও তার স্ত্রী মাহিনুর বেগম (মনিরা) ও তার সহযোগীরা। বিভিন্ন সময় তাকে নানা কৌশল করেও বাড়ি থেকে তাড়াতে পারেনি। গত বছর বাড়ী থেকে তাড়ানোর জন্য মায়া বেগমকে দু’দফায় মারধর করে খোকন মোল্লা।কিন্তু স্থানীয় ইউপি সদস্য ও গ্রাম পুলিশের হস্তক্ষেপে প্রতিবন্ধি পরিবারকে তাড়াতে পরেনি।মঙ্গলবার রাত ৭টার সময় মায়া বেগম ঘরের সামনে উঠানে কাজ করছিল।এসময় মোহন মোল্লা, তার স্ত্রী মাহিনুর, সহযোগী হাবিব বয়াতি ও রাহিমা বেগম এসে মায়াকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপাতে থাকে। তারা মায়াকে কুপিয়ে দুই হাত ও দুই পায়ে গুরুতর জখম করে। মায়ার ডাক চিৎকার শুনে তার শিশু কন্যা খুকুমনি এগিয়ে গেলে তাকেও কুপিয়ে আহত করে।

খবর পেয়ে স্বজনরা তাদের উদ্ধার করে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। তার অবস্থা গুরুতর হওয়ায় ওই রাতেই তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য পটুয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় বুধবার মায়ার বাবা আদেল উদ্দিন সিকদার বাদী হয়ে মোহন মোল্লাকে প্রধান
আসামী করে আমতলী থানায় মামলা দায়ের করেছে। আহত মায়া বেগম কান্নাজনিত কন্ঠে বলেন, আমার স্বামী মানষিক প্রতিবন্ধি। আমার স্বামীর জমি ও বাড়ী দখলের জন্য তার ছোট ভাই মোহন মোল্লা ও তার স্ত্রী মাহিনুর বিভিন্ন ভাবে চেষ্টা চালাচ্ছে। কিন্তু আমার কারনে তারা পারছে না। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে তারা আমাকে হত্যার জন্য ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করেছে। আমি এ ঘটনার বিচার চাই।

অভিযুক্ত খোকন মোল্লা কুপিয়ে জখমের কথা অস্বীকার করেছে। মোহন মোল্লা টাকা নেয়া ও মারধরের কথা অস্বীকার করে বলেন, আমার স্ত্রীর সাথে তার সামান্য কথা কাটাকাটি হয়েছে।
আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার মো. শাহাদাত হোসেন বলেন, মায়া বেগমের দুই হাতে ও পায়ে গুরুতর জখম রয়েছে। তাকে উন্নত
চিকিৎসার জন্য পটুয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে।
আমতলী থানার ওসি (তদন্ত) মো. হেলাল উদ্দিন বলেন, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। আসামীদেরগ্রেফতার চেষ্টা অব্যাহত আছে।



সম্পাদনা: আমাদের বরিশাল ডেস্ক


প্রকাশক: মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন তালুকদার    সম্পাদক: মো: জিয়াউল হক
সাঁজের মায়া (২য় তলা), হযরত কালুশাহ সড়ক, বরিশাল-৮২০০। ফোন : ০৪৩১-৬৪৫৪৪, মুঠেফোন : ০১৮২৮১৫২০৮০ ই-মেইল : hello@amaderbarisal.com
আমাদের বরিশাল ডটকম -এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।