Current Bangladesh Time
Sunday July ১৪, ২০২৪ ৭:৫৭ PM
Barisal News
Latest News
Home » নেছারাবাদ (স্বরূপকাঠি) » পিরোজপুর » নেছারাবাদে স্কুলে ৭ মাস অনুপস্থিত : হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর
২০ November ২০২৩ Monday ৪:১৭:৫৭ PM
Print this E-mail this

নেছারাবাদে স্কুলে ৭ মাস অনুপস্থিত : হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর


পিরোজপুর নেছারাবাদ উপজেলার ১৯ নং পশ্চিম সোহাগদল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মোঃ মিজানুর রহমান সাত মাস ধরে কর্মস্থলে অনুপস্থিত থেকেও বেতন ভাতা তুলতে দৌড় ঝাপ শুরু করেছেন।

মিজানুর রহমান ২০২৩ সালের মে মাস থেকে নভেম্বর মাস পর্যন্ত কর্মস্থলে অনুপস্থিত আছেন। ওই বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সুলতানা পারভীনের ভাষ্যনুযায়ি দপ্তরি মিজানুর রহমান সাত মাস পর্যন্ত কর্মস্থলে অনুপস্থিত রয়েছেন। তবে দীর্ঘ সময়ে তিনি কর্মস্থলে অনুপস্থিত থাকা স্বত্ত্বেও হাজিরা খাতায় নিয়মিত স্বাক্ষর রয়েছে তার। কর্মস্থলে অনুপস্থিত থেকেও হাজিরা খাতায় দপ্তরি মিজানের অলৌকিক স্বাক্ষরের বিষয়ে কিছুই জানেননা ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মোসাৎ সুলতানা পারভীন। তিনি বলেছেন, দপ্তরির হাজিরা খাতা থাকে সভাপতির কাছে। এখন শুনেছি দপ্তরি মিজান নাকি অসুস্থ। তাই সভাপতির নির্দেশে রেজুলেশন করে মিজান একটি মেডিকেল রিপোর্ট এনে বেতন তোলার জন্য সব কাগজ পত্র উপজেলা শিক্ষা অফিসে জমা দিয়েছেন।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বলেন গত মে মাসে হঠাৎ মিজান কিছু না বলে বিদ্যালয় থেকে লাপাত্তা হয়ে যায়। কিছুদিন পরেও মিজান বিদ্যালয়ে না আসায় বিষয়টি শিক্ষা কর্মকর্তাকে অবহিত করা হয়। সেই থেকে মিজান বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত। তবে গত আগস্ট মাসে বিদ্যালয়ের সভাপতি মো: জাকারিয়া শরীফ এসে বলেন মিজান অসুস্থ ছিল। সে একটি মেডিকেল রিপোর্ট নিয়ে বিদ্যালয়ে আসবে। আপনি রেজুলেশন করে মিজানকে বিদ্যালয়ে অন্তর্ভুক্ত করুন। মিজান মেডিকেল রিপোর্ট এবং আমাদের রেজুলেশন কাগজ নিয়ে উপজেলা শিক্ষা অফিসে উপস্থাপন করেছে। তবে মিজান এখনো বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত রয়েছে।

এ ব্যাপারে দপ্তরি মিজানের সাথে দেখা করে কথা বলার জন্য বিদ্যালয়ে গেলেও দেখা মেলেনি তার। এক পর্যায়ে তার ব্যবহৃত ফোনে একাধিকবার ফোন দেয়ার পরে ফোন রিসিভ করেন। ফোন রিসিভ করে তিনি বলেন আমি এ বিষয়ে পরে কথা বলব। আমি একটু ব্যস্ত এই বলে তিনি ফোনের লাইন কেটে দেন।

বিদ্যালয়ের সভাপতি মো: জাকারিয়া শরীফ বলেন, মিজান অসুস্থ ছিল। তাই মে মাস থেকে জুলাই মাস পর্যন্ত বিদ্যালয়ে আসেনি। আগষ্টে সে একটি মেডিকেল রিপোর্ট নিয়ে বিদ্যালয়ে এসেছে। বিদ্যালয়ের রেজুলেশন কপি এবং মেডিকেল রিপোর্ট নিয়ে সে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা এবং পিরোজপুর যাচ্ছে। তাই এই অফিসিয়ালি কাজের জন্য মাঝেমধ্যে বিদ্যালয়ে আসতে তার দেরি হচ্ছে। মিজানের বিদ্যালয়ের এইসব অফিসিয়ালি কাজ করা এটা কি বিদ্যালয়ের কাজ নয়; বলে জানান সভাপতি জাকারিয়া শরীফ। মিজান স্কুলে না এসেও হাজিরা খাতায় নিয়মিত স্বাক্ষর করেন কিভাবে পুনরায় জানতে চাইলে, তিনি বলেন হাজিরা খাতা আমার কাছে থাকেনা। ওটা প্রধান শিক্ষক জানেন।

উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো: নাসির উদ্দীন খলীফা জানান, ওই বিদ্যালয়ের দপ্তরি গত মে মাস থেকে বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত। এ মর্মে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুলতানা পারভীন আমাকে লিখিতভাবে অবগত করেন। আমি তার আলোকে মিজানকে একটি শোকজ করে সাত কর্ম দিবসের মধ্যে কৈফিয়াৎ চেয়েছিলাম। মিজান তার কোন জবাব দেয়নি। হটাৎ গেল আগষ্ট মাসে স্কুল ম্যানেজিং কমিটির রেজুলশন এবং মেডিকেল রিপোর্ট এনে মিজান বেতন ভাতা তোলার জন্য আমার কাছে কাগজ দিয়েছে। আমি সব কাগজ আমার উর্ধ্বতন বরাবর প্রেরণ করে দিক নির্দেশনা চাইব। তারা যে নির্দেশনা দেয় আমি সেই আলোকে কাজ করব।

সম্পাদনা: আমাদের বরিশাল ডেস্ক

শেয়ার করতে ক্লিক করুন:

আমাদের বরিশাল ডটকম -এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
(মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। amaderbarisal.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের মিল আছেই এমন হবার কোনো কারণ নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে amaderbarisal.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নেবে না।)
পটুয়াখালীতে ইপিজেডে কাজে স্থানীয়দের বাধা, জমির টাকার দাবিতে বিক্ষোভ
কোটা সংস্কার আন্দোলন: বরিশাল নগরীর প্রধান সড়কে ঘণ্টাব্যাপী অবরোধ
রাষ্ট্রপতিকে শিক্ষার্থীদের স্মারকলিপি, দাবি আদায়ে ২৪ ঘণ্টার আলটিমেটাম
এক বন্ধুর দেওয়া তথ্যে মিলল আরেক বন্ধুর কঙ্কাল
কোটা সংস্কারের দাবিতে জ্বলন্ত মোমবাতি হাতে ববি শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ
Recent: Mayor Hiron Barisal
Recent: Barisal B M College
Recent: Tender Terror
Kuakata News

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
আমাদের বরিশাল ২০০৬-২০২০

প্রকাশক ও নির্বাহী সম্পাদক: মোয়াজ্জেম হোসেন চুন্নু, সম্পাদক: রাহাত খান
৪৬১ আগরপুর রোড (নীচ তলা), বরিশাল-৮২০০।
ফোন : ০৪৩১-৬৪৫৪৪, ই-মেইল: hello@amaderbarisal.com