Current Bangladesh Time
মঙ্গলবার ফেব্রুয়ারী ২৮, ২০১৭ ৮:২৭ অপরাহ্ন
Barisal News
Latest News
প্রচ্ছদ » পাঠকের লেখা » প্রথম আলোর বিরুদ্ধে ‘চৌর্যবৃত্তি’র অভিযোগ!
২৭ জানুয়ারী ২০১৫ মঙ্গলবার ৪:৪৩:৩৭ অপরাহ্ন
Print this E-mail this

জীবনানন্দ পুরস্কার

প্রথম আলোর বিরুদ্ধে ‘চৌর্যবৃত্তি’র অভিযোগ!
মো: মুজিবুর রহমান


jibanananda-puroskar-barisal জীবনানন্দ দাশ সাহিত্য পুরষ্কার

ক্লিন্টন বি সিলি ও প্রথমা’র অর্থায়নে দৈনিক ‘প্রথম আলো’ প্রবর্তন করেছে জীবনানন্দ দাশ পুরস্কার। কবি জীবনানন্দ দাশের নামে এই পুরস্কার প্রবর্তনের জন্য স্বাভাবিকভাবেই পত্রিকা কর্তৃপক্ষের ধন্যবাদ ও অভিনন্দন পাওয়া উচিত ছিল কিন্তু তা না হয়ে বইছে সমালোচনার ঝড়। কারণ এই পুরস্কার আগে থেকেই চালু আছে এবং বিভাগীয় শহর বরিশালের কিছু তরুণ সাহিত্যপ্রেমিদের উদ্যোগে ২০০৭ সাল থেকে কথাসাহিত্য ও গদ্যসাহিত্য এই দুই বিভাগের জন্যে দেওয়া হচ্ছে এই পুরস্কার। বরিশাল থেকে সে পুরস্কার প্রদান এখনও বন্ধ হয়নি এবং আয়োজকদের মাধ্যমে জানা গেছে তারা এখনও আছেন এই কর্মসূচিতে এবং প্রথম আলো কর্তৃপক্ষ এই পুরস্কার প্রবর্তনের আগে তাদের সাথে কোন প্রকার যোগাযোগও করেনি। জীবনানন্দ পুরস্কার -এর পূর্বের আয়োজকরা এটাকে সরাসরি জাতীয় পত্রিকাটির ‘চৌর্যবৃত্তি’ হিসেবেই দেখছেন। আবার জীবনানন্দ দাশের নামে যে কেউ পুরস্কার প্রবর্তন করতে পারে বলে বলেনও মত দিচ্ছেন অনেকে।

‘কায়কাউসের ছেলে’ কাব্যগ্রন্থের জন্য প্রথম আলোর এই পুরস্কার পেয়েছেন সাইয়েদ জামিল। কিন্তু বইয়ের কবিতার ভাষা নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। আগে থেকেই চালু পুরস্কার নতুনভাবে প্রবর্তনের পাশাপাশি প্রথম আলোর পুরস্কারপ্রাপ্ত কবির বিরুদ্ধে অশ্লীল শব্দচয়নের অভিযোগ এবং এমন বই নির্বাচনের জন্য নানান ধরণের লেখা লিখছেন অনেকে।

ইশতিয়াক আহমেদ লিখেছেন, ‘সকালে উঠেই একজনকে ঝাড়ি দিলাম, মুখ খারাপ করাবেন না। সাইয়েদ জামিলের কবিতা শোনাবো কিন্তু…’

হাবীবাহ নাসরীন লিখেছেন, ‘অশ্লীল ‘কবিতা’ লিখে পুরস্কার পাওয়া যায়, আলোচনায় আসা যায়, পাঠকের কাছাকাছি যাওয়া যায় না…।’

সিডাটিভ হিপনোটিক্স লিখেছেন, ‘কবিতা শ্লীল কিংবা অশ্লীল তার বিচার আমার করার যোগ্যতা নাই, কখনও করতে যাইও না। কিন্তু পাকিস্তানপ্রেমী, গোলাম আজমকে ভাষা সৈনিক আখ্যাদানকারী, নূর হোসেন এর মৃত্যুকে তাচ্ছিল্য করা লোক কখনও বাংলার শুদ্ধতম কবির নামে পুরুস্কার পাইতে পারে না। তা যদি ইচ্ছে হয়, তার কবিতার বুঝদাররা নিজেদের নামে পুরুস্কার দিয়া দিয়েন।’

তবে ফেসবুকে প্রকাশিত কবি সাইয়েদ জামিলের কবিতা এবং তার পাকিস্তান প্রেমের নমুনার চাইতেও বড় ব্যাপার হয়ে ওঠেছে প্রথম আলো কর্তৃপক্ষের চৌর্যবৃত্তিক মানসিকতার, কারণ জীবনানন্দের নামে ২০০৭ সাল থেকে পুরস্কার প্রদান করে আসছে বরিশাল থেকে প্রকাশিত কয়েকটি ছোট কাগজ ও বিভিন্ন সংগঠনের সম্মিলিত একটা সাহিত্য অনুরাগিগোষ্ঠী। এই পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে হাসান আজিজুল হকের মতো প্রথিতযশা সাহিত্যিক উপস্থিত থেকে তরুণ সাহিত্যকর্মিদের সাহিত্য নিবেদনকে স্বীকৃতি দিয়েছেন। এছাড়াও ২০১৪ সালে পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কবি আসাদ চৌধুরীও।

prothom-alo-jibanananda-puroskar বরিশাল থেকে প্রবর্তিত জীবনানন্দ পুরস্কার নিয়ে প্রথম আলোতে প্রকাশিত সংবাদ

বরিশাল থেকে প্রবর্তিত জীবনানন্দ পুরস্কার নিয়ে প্রথম আলোতে প্রকাশিত সংবাদ

জীবন্দানন্দ দাশ পুরস্কার চালু আছে সংবাদটি প্রথম আলো কর্তৃপক্ষ জানত না এমন না, কারণ তারা নিজেরাই এ পুরস্কার প্রদানের খবর তাদের পত্রিকায়ও প্রকাশ করেছিল। তবু কেন তারা দখলদারিতে নেমেছে এই প্রশ্ন ঘুরছে সবার মাঝে।

জীবনানন্দ দাশ’র শহর বরিশাল থেকে জীবনানন্দ দাশ সাহিত্য পুরস্কার দেওয়া শুরু হয় ২০০৭ সাল থেকে। পুরস্কারটি “ধানসিড়ি সাহিত্য সৈকত, ছোটকাগজ দূর্বা ও আড্ডা ধানসিড়ি” নামের তিনটি সংগঠনের যৌথ প্রচেষ্টার ফসল। ২০০৭ সালে প্রবর্তিত এ পুরস্কারের সাথে ২০১৪ সালে যুক্ত হয় আর একটি পরিবার- রাইট ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ। ২০০৭, ২০০৮, ২০১৩ ও ২০১৪ সালের প্রতি বছর দুজন করে সাহিত্যিককে (গদ্য ও কাব্য) এই পুরস্কার দেয়া হয়েছে। ২০১৪ সালের পুরস্কারপ্রাপ্তদের হাতে সীমিত সামর্থের মধ্যে থেকেও আয়োজকরা তুলে দিয়েছিল মানপত্র/ক্রেস্টের পাশাপাশি নগদ দশ হাজার টাকাও।

আট বছর হয়ে গেলেও আয়োজকেরা মাত্র চার বার দিতে পেরেছিলেন এই পুরস্কার। প্রতিবারই তারা কথাসাহিত্য ও গদ্যসাহিত্যের জন্যে দুজন লেখককে সম্মানিত করেছিলেন। ২০০৭ সালের পুরস্কারপ্রাপ্তরা ছিলেন কাব্যসাহিত্যে আসাদ মান্নান এবং গদ্যসাহিত্যে সালমা বাণী। ২০০৮ সালের পুরস্কারপ্রাপ্তরা ছিলেন কাব্যসাহিত্যে কামাল চৌধুরী ও গদ্যসাহিত্যে সুশান্ত মজুমদার। ২০১৩ সালের পুরস্কারপ্রাপ্তরা ছিলেন কাব্যসাহিত্যে খোন্দকার আশরাফ হোসেন ও গদ্যসাহিত্যে শান্তনু কায়সার এবং ২০১৪ সালের পুরস্কারপ্রাপ্তরা ছিলেন কাব্যসাহিত্যে খালেদ হোসাইন ও গদ্যসাহিত্যে ইমতিয়ার শামীম।

বরিশালের আয়োজকরা জানান, প্রতিবছর জীবনানন্দের জন্মমাস ফেব্রুয়ারিতে জীবনানন্দ পুরস্কারপ্রাপ্ত সাহিত্যিকদের নাম ঘোষণা করে থাকে, এবং জীবনানন্দের মহাপ্রয়াণের মাস অক্টোবরে আনুষ্ঠানিকভাবে পুরস্কারটি প্রদান করা হয়ে থাকে। উল্লেখিত এ দুই মাসে পুরস্কারটি ঘোষণা ও প্রদান জীবনানন্দের সাথে তাদের আত্মিক সম্পর্ককে প্রকাশ করে থাকে, সেই সাথে পুরস্কারটি তার নামের সার্থকতাও বহন করে। কিন্তু এবার প্রথম আলো কর্তৃপক্ষ জানুয়ারি মাসেই তাদের পুরস্কার প্রদানের ঘোষণা দিয়ে সবাইকে অবাক করে দিয়েছে।

প্রথম আলো প্রবর্তিত জীবনানন্দ দাশ সাহিত্য পুরস্কার বাংলাদেশে প্রথম প্রবর্তন নয়। রীতিমত জোর করেই এই পুরস্কার প্রদানের বিষয়টি ছিনিয়ে নেওয়া হচ্ছে বলে সাহিত্য সংশ্লিষ্টজনদের ধারণা।
মো: মুজিবুর রহমান


শেয়ার করতে ক্লিক করুন:

আমাদের বরিশাল ডটকম -এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
(মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। amaderbarisal.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের মিল আছেই এমন হবার কোনো কারণ নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে amaderbarisal.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নেবে না।)
বরিশাল জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগ
বরিশালে আকষ্মিক বাস ধর্মঘটে দুর্ভোগ চরমে
রাত পোহালেই বরিশালে ২৩নং ওয়ার্ডে ভোট গ্রহণ
শিক্ষা সচেতনতা বাড়াতে দেশ ভ্রমণে নিরক্ষর জাহিদুল
কাজের মধ্য দিয়ে নিরপেক্ষতা প্রমাণ করব -প্রধান সিইসি
বরিশালে নারীর মাথায় পোকার বাসা!
Recent: Mayor Hiron Barisal
Recent: Barisal B M College
Recent: Tender Terror
Kuakata News

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
আমাদের বরিশাল ২০০৬-২০১৪

প্রকাশক: মোয়াজ্জেম হোসেন চুন্নু, সম্পাদক: রাহাত খান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: মোঃ জিয়াউল হক
৪৬১ আগরপুর রোড (নীচ তলা), বরিশাল-৮২০০।
ফোন : ০৪৩১-৬৪৫৪৪, ই-মেইল: [email protected]