Current Bangladesh Time
সোমবার জানুয়ারী ২৩, ২০১৭ ২:২৭ অপরাহ্ন
Barisal News
Latest News
প্রচ্ছদ » পর্যটন » নদীর জোয়ার বিড়ম্বনার শিকার আগন্তুক পর্যটক
২১ জুলাই ২০১৫ মঙ্গলবার ১১:০৪:০৯ অপরাহ্ন
Print this E-mail this

কুয়াকাটা ভ্রমনে বাধাঁ ৪ নদী

নদীর জোয়ার বিড়ম্বনার শিকার আগন্তুক পর্যটক
নিজস্ব প্রতিবেদক, সাঈদ পান্থ


kalapara-pic1-tidel-watter-10-08-2014দেশের অন্যতম পর্যটন কেন্দ্র সাগর কন্য কুয়াকাটা যাতায়াতে চরম বিরাম্বনায় হাজার হাজার পর্যটক। বরিশাল-কুয়াকাটা সড়কের ৪টি ফেরি এ দুর্ভোগের অন্যতম কারণ। জোয়ার ভাটার উপর ভিত্তি করে এখানকার ফেরি পারাপাড় করে। ফলে কুয়াকাটার গলার কাটায় পরিনত হয়েছে ওই রুটের ৪ নদীর ফেরি সার্ভিস। অস্বাভাবিক জোয়র সৃষ্টি হলেই দিনের অধিকাংশ সময়ই ফেরির পন্টুন কিংবা গ্যাংওয়ে তলিয়ে যাচ্ছে নদীর পানিতে। তবে সংশিষ্টদের দাবী, সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যে পর্যটকদের দুর্ভোগ লাগব করে ব্রীজ উদ্বোধন হচ্ছে।

বরিশাল-কুয়াকটা যেতে প্রধান বাধাঁ ৪ নদী পারাপারের অন্যতম যোগাযোগ ব্যবস্থা ফেরি সার্ভিস। এ ৪টি নদী হচ্ছে বরিশাল-পটুয়াখালীর লেবুখালীর পায়রা নদী, কলাপাড়ার আন্ধার মানিক, হাজিপুর’র সোনাতলা নদী ও পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটা সংলগ্ন মহিপুর-আলীপুর’র শিববাড়িয়া নদী। প্রতিটি ফেরির গংওয়ে উচু করে স্থাপন না করার কারণে দিনের অধিকাংশ সময়ই জোয়ারের পানিতে ঢুবে থাকে গংওয়ে গুলো। যার কারণে ভাটার জন্য পর্যটকদের অপেক্ষা করতে হয়।

বেসরকারী কোম্পানীর চাকুরীজীবী শাহারিয়ার আহম্মেদ জানান, তিনি ঈদের ২য় দিন তার পরিবার নিয়ে কুয়াকাটায় আনন্দ ভ্রমনে যান। তবে যাওয়ার সময় তেমন অসবিধা না হলেও আসার সময় আলীপুর-মহিপুর, হাজীপুর, কলাপাড়া ও লেবুখালী ফেরি ঘাটে এসে বিরম্বনায় পড়তে হয়েছে। প্রতিটি ফেরির পন্টুন নদীর পানিতে ডুবন্ত ছিল। যার কারণে ভাটার জন্য তার গাড়ীকে অপেক্ষা করতে হয়েছে। তিনি বলেন পর্যটকদের এতো কষ্ট করতে হলে তারা আর আসবে না। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে,

ইতোমধ্যে পায়রা নদীর উপর সেতু নির্মানের প্রক্রিয়া চালানো হয়েছে। এছাড়া আন্ধারমানিক, সোনাতলা ও সিববাড়িয়া নদীর উপর দীর্ঘ দীর্ঘ দিন ধরে যথাক্রমে শেখ জামাল, শেখ কামাল ও শেখ রাসেল সেতু নির্মানাধীন রয়েছে। যা খুব শীঘ্রই উদ্বোধন করা হবে।

কুয়াকাটার এক কলেজ শিক্ষক শহিদুল ইসলাম শাহিন জানান, বরিশাল থেকে কুয়াকাটার দুরত্ব ১২০ কিলোমিটার। অথচ এর মধ্যে চারটি ফেরি। পূবে আরো একটি বেশী ছিল। এ ফেরিগুলোই কুয়াকাটায় যেতে প্রধান বাধাঁ। এর মধ্যে কলাপাড়া ফেরি ঘাটে আসলে প্রতিবন্ধকতার শেষ নেই। এখানকার ফেরি হচ্ছে লক্করঝক্কর। তার মধ্যে আবার গাড়ি না ভরলে ফেরি ছাড়ে না। ওদিকে জোয়ার আসলে ৪ থেকে ৬ ঘন্টা ফেরিতে গাড়ি উঠতে পারে না বা নামতেও পারে না। আসরাফুল ইসলাম নামে এক পর্যটক জানান, মহিপুর-আলীপুর’র ফেরি ঘাটের সাথে আরো একটি ফেরি যুক্ত করলেই যাতায়াত করা যায়। কিন্তু সেখানেও ভাটার জন্য পর্যটকদের দীর্ঘ অপেক্ষা করতে হচ্ছে। তিনি বলেন, কিন্তু দীর্ঘ বছরেও সেতুর কাজ শেষ হচ্ছে না। ফলে এতোসব দুর্ভোগের কারণে ফেরিঘাটে এসেই পর্যটকদের আনন্দ যেন নিরানন্দে পরিনত হচ্ছে। কোয়াকাটার ব্যবসায়ীদের দাবী, কুয়াকাটা বিশ্বের অন্যতম সীবিচ। যেখানে দাড়িয়ে সুর্যদয়-সুর্যাস্ত দেখা যায়। এটি আকর্ষনীয় ও নিরাপদ সাগর সৈকত। পর্যটকও আসতে চান। কিন্তু যোগাযোগ ব্যবস্থার বেহাল দশায় একবার আসলে যেন হাপিয়ে উঠেন। পর্যটকদের প্রধান বিরক্ত ফেরিঘাট। বিদেশী কোন পর্যটক যখন দেখেন পন্টুনে গ্যাংওয়ে পানিতে ডুবে আছে তখন কেন তারা কুয়াকাটা মুখী হবে? ফেরির গ্যাংওয়ে, পন্টুন প্রাযসই তো ডুবে থাকে। অবশ্য সংশিস্টরা কোন স্থায়ী উদ্যোগ নিচ্ছে না।

সম্প্রতি অবসরে যাওয়া পটুয়াখালী ফেরি বিভাগের নির্বাহী প্রকেীশলী আবুল ফজল মালি আমাদের বরিশাল ডটকমকে বলেন, দক্ষিনাঞ্চলের যত ফেরি রয়েছে সবগুলোই ২৫ বছর আগের। অথচ যেকোন ফেরির মেয়াদ মাত্র ১০বছর। তিনি বলেন, লেবুখালী ফেরিসহ কয়েকটি ঘাটে জোয়ারের সময় পানি ১০ ফিট উপরে উঠে যাচ্ছে। অপেক্ষা করতে হয় ভাটার জন্য।

তিনি জানান, আগামী সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যে মহিপুরের ব্রীজ নির্মান কাজ শেষ হবে। খুব শীঘ্রই খেপুপাড়া ব্রীজ নির্মানের কাজও শেষ হবে। আশা করা যায়, সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যেই প্রধানমন্ত্রী এ ব্রীজগুলো উদ্বোধন করতে পারবে। তবে প্রধানমন্ত্রী চাচ্ছে এক সাথে ৩টি ব্রীজ উদ্বোধন করতে। এছাড়া লেবুখালি ব্রীজের জন্য ইতোমধ্যে টেন্ডার কল করা হয়েছে। যা সৌদি ফান্ডে স্থাপন করা হচ্ছে।

সম্পাদনা: জপ / বরিশাল ডেস্ক

শেয়ার করতে ক্লিক করুন:

আমাদের বরিশাল ডটকম -এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
(মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। amaderbarisal.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের মিল আছেই এমন হবার কোনো কারণ নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে amaderbarisal.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নেবে না।)
বরিশাল জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগ
‘ঢাকা থেকে পায়রা পর্যন্ত ডুয়েল গেজ রেলপথ নির্মাণ হবে’
বরিশালে স্থাপন হচ্ছে শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং সেন্টার
ঝালকাঠির আ.লীগের সাংসদ হারুনকে তলব
বরগুনায় বাড়ির পিছনে মিলল নিখোঁজ শিশুর কঙ্কাল
বরিশালসহ ২১ জেলায় পণ্য পরিবহন ধর্মঘট শুরু
Recent: Mayor Hiron Barisal
Recent: Barisal B M College
Recent: Tender Terror
Kuakata News

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
আমাদের বরিশাল ২০০৬-২০১৪

প্রকাশক: মোয়াজ্জেম হোসেন চুন্নু, সম্পাদক: রাহাত খান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: মোঃ জিয়াউল হক
৪৬১ আগরপুর রোড (নীচ তলা), বরিশাল-৮২০০।
ফোন : ০৪৩১-৬৪৫৪৪, ই-মেইল: [email protected]