AmaderBarisal.com Logo

বঙ্গবন্ধুর খুনিদের পুরস্কৃত করে সন্ত্রাসের লালন শুরু- শেখ হাসিনা

ডেস্ক রিপোর্ট
আমাদেরবরিশাল.কম

১৩ আগস্ট ২০১৫ বৃহস্পতিবার ৯:২০:১৯ অপরাহ্ন

বঙ্গবন্ধুর খুনিদের পুরস্কৃত করে সন্ত্রাসের লালন শুরু- শেখ হাসিনাবঙ্গবন্ধুর খুনিদের পুরস্কৃত করে সন্ত্রাসের লালন শুরু- শেখ হাসিনাবঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হত্যাকারীদের বিচারের বদলে ‘পুরস্কৃত’ করার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশে ‘সন্ত্রাসের উত্থান ও তাদের লালন-পালন’ শুরু হয় বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বৃহস্পতিবার বিকালে সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় বঙ্গবন্ধুর জীবনীনির্ভর ‘চিত্রগাথায় শোকগাথা’ শীর্ষক প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ মন্তব্য করেন তিনি।

শেখ হাসিনা বলেন, “কারও আপনজন হারালে, খুন হলে, হত্যা হলে সকলে বিচার চায়। কিন্তু কী দুর্ভাগ্য আমাদের! আমাদের বিচার চাইবার অধিকারটুকুও ছিল না। সেই অধিকারটুকুও কেড়ে নেওয়া হয়েছিল।

“ওই খুনিরা, যারা জাতির পিতাকে হত্যা করেছিল, তাদের বিচারের হাত থেকে রেহাই দিয়ে মিলিটারি ডিক্টেটর জিয়াউর রহমান অর্ডিন্যান্স জারি করেছিল এবং খুনিদের পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে দূতাবাসে চাকরি দিয়ে পুরস্কৃত করেছিল।

“এই শুরু হল খুনের রাজত্ব, জঙ্গিবাদের উত্থান, সন্ত্রাসের উত্থান, সন্ত্রাসীদের লালন-পালন করা।”

বঙ্গবন্ধুকন্যা বলেন, “১৫ অগাস্ট আমরা শুধু জাতির পিতাকে হারিয়েছি তাই নয়। আমাদের মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ভূলুণ্ঠিত করা হল। আমাদের সংবিধানকে ক্ষত-বিক্ষত করে যে চেতনা নিয়ে বাংলাদেশের স্বাধীনতা সেই চেতনাকে ভূলুণ্ঠিত করে সংবিধানে পরিবর্তন আনা হল।
“যে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চলছিল তাদের সেই বিচার বন্ধ করে দিয়ে সাজাপ্রাপ্তদের মুক্তি দিয়ে রাজনৈতিকভাবে প্রতিষ্ঠিত করা হল। মন্ত্রী, প্রধানমন্ত্রী, উপদেষ্টা করা হল। বাংলাদেশের ইতিহাস বিকৃত করা হল।”

শেখ হাসিনা বলেন, “২১ বছর এ মাটিতে বঙ্গবন্ধুর নাম নেওয়া যেত না। ২১ বছর মুক্তিযুদ্ধের গান শোনার অধিকার এদেশের মানুষে ছিল না। মুক্তিযুদ্ধের কথা বলার অধিকার ছিল না। বিকৃত ইতিহাস জানানো হত। “কী অদ্ভুত একটা যাত্রা শুরু হয়েছিল!”

তবে ২১ বছর পর ১৯৯৬ সালে তার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ আবার সরকার গঠন করার পর পুনরায় ‘সঠিক ইতিহাস’ তুলে ধরার কাজ শুরু করে বলে মন্তব্য করেন শেখ হাসিনা।

তরুন প্রজন্মকে সঠিক ইতিহাস জানানোর প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরে তিনি বলেন, একটি জাতিকে গড়ে তুলতে হলে তার গৌরবের ইতিহাস জানতে দিতে হবে।

১৯৯৫ সালের ১৫ অগাস্ট সপরিবারে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হলেও তার আদর্শ মুছে ফেলা যাবে না বলে মন্তব্য করেন প্রধানমন্ত্রী।

“বঙ্গবন্ধুর আদর্শ চির জাগ্রত। এ আদর্শকে তো তারা হত্যা করতে পারে নাই। বঙ্গবন্ধুকে আমাদের মাঝ থেকে নিয়ে গেছে। কিন্তু বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে কেউ হত্যা করতে পারেনি। ইনশায়াল্লাহ ভবিষ্যতে আর পারবে না।

শেখ হাসিনা বলেন, “এই বাঙালি আজ মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে। যত বাধা-বিঘ্ন, চড়াই-উৎরাই, বন্ধুর পথ আসুক না কেন বাঙালি জাতি তা অতিক্রম করে এগিয়ে যাচ্ছে, বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে।

“আজকে বিশ্বে বাংলাদেশ উন্নয়নের রোল মডেল। সেদিন বেশি দূরে নয়, যেদিন এ বাংলাদেশ উন্নত দেশ হিসেবে বিশ্বের দরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে। উন্নত দেশ হিসেবে বিশ্বসভায় মর্যাদার আসনে অধিষ্ঠিত হবে। সেটাই আমাদের লক্ষ্য।”

বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারণ করে এগিয়ে চলার কথা জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, “আমি সব কিছু হারিয়েছি-মা, বাবা, ভাই, বোন। কিন্তু জাতির পিতা যে শিক্ষা দিয়ে গেছেন-দেশের জন্য, মানুষের জন্য আত্মত্যাগ করা, জীবনের যে কোনো ঝুঁকি নিয়ে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া। জাতির পিতার সেই শিক্ষা আজো বুকে ধারণ করে আমি এগিয়ে যাবার চেষ্টা করছি।”

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন আয়োজিত প্রদর্শনীতে বঙ্গবন্ধুর অনেক ছবি স্থান পেয়েছে। প্রদর্শনী উদ্বোধনের পর প্রধানমন্ত্রী দক্ষিণ প্লাজায় বিভিন্ন ছবি ঘুরে দেখেন।

এসময় সেখানে বঙ্গবন্ধুর একটি প্রতিকৃতি আঁকেন চিত্রশিল্পী শাহাবুদ্দিন আহমদ। ওই ক্যানভাসে শিল্পীর সঙ্গে তুলি ধরেন বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আনিসুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে জন প্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, স্থানীয় সরকারমন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বক্তব্য দেন।

অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে একটি কবিতা পড়ে শোনান সৈয়দ শামসুল হক।

 

সূত্র- বিডি নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকম



সম্পাদনা: জপ / বরিশাল ডেস্ক


প্রকাশক: মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন তালুকদার    সম্পাদক: মো: জিয়াউল হক
সাঁজের মায়া (২য় তলা), হযরত কালুশাহ সড়ক, বরিশাল-৮২০০। ফোন : ০৪৩১-৬৪৫৪৪, মুঠেফোন : ০১৮২৮১৫২০৮০ ই-মেইল : [email protected]
আমাদের বরিশাল ডটকম -এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।