AmaderBarisal.com Logo

বাকেরগঞ্জে সাইক্লোন শেল্টারের রাস্তা কেটে ধান চাষ !

নিজস্ব প্রতিবেদক
আমাদেরবরিশাল.কম

২৩ আগস্ট ২০১৫ রবিবার ৬:০৮:৫৮ অপরাহ্ন

বরিশাল সংবাদ মানচিত্রসাইক্লোন শেল্টার কাম স্কুলের রাস্তা কেটে ট্রাকটর দিয়ে জমিতে রুপান্তর করে ধানের বীজ চাষ করার অভিযোগ পাওয়াগেছে। শুক্রবার রাতের আঁধারে রাস্তাটি কেঁটেফেলে স্থানীয় প্রভাবশালী প্রভাবশালী একটি চক্র।

ঘটনাটি ঘটেছে বরিশাল জেলার বাকেরগঞ্জ উপজেলার জনগুরুত্বপূর্ণ কলসকাঠী-ঢাপরকাঠী সড়কের দূর্গাপুর ব্রিজ সংলগ্ন এলাকায়।

এরফলে গত দুইদিন ধরে ওই রাস্তা দিয়ে চলাচল করা কয়েক হাজার গ্রামবাসীর চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এ ঘটনায় এলাকাবাসীর মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হলেও প্রভাবশালীদের ভয়ে এলাকার কেউ মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছেন না।

 

স্থানীয় একাধিক সূত্রে জানা গেছে, কলসকাঠী-ঢাপরকাঠীগামী সড়কের দূর্গাপুর ব্রীজ হইতে উত্তর পাশের প্রাথমিক বিদ্যালয় কাম সাইক্লোন শেল্টার পর্যন্ত ৪ ফুট উঁচু এক কিলোমিটারের সড়কটি দিয়ে প্রতিদিন ওইসব এলাকার কোমলমতি শিশু শিক্ষার্থীসহ কয়েক হাজার গ্রামবাসী চলাচল করতো।

একবছর পূর্বে এলাকার জনগনের যাতায়াতের সুবিধার্থে স্থানীয় বাসিন্দা প্রকৌশলী আবুল বাশার ব্যক্তিগত অর্থায়ণে রাস্তার সংস্কার কাজ করেন। ওইসময় একই গ্রামের প্রভাবশালী ভূমিদস্যু মোকলেসুর রহমান সংস্কার কাজে বাঁধা প্রদান করেন। পরে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে রাস্তাটি সংস্কার করা হয়।

সড়কের বৃহৎঅংশের সম্পত্তি নিজেদের দাবি করে প্রভাবশালীরা শুক্রবার মধ্যরাতে ৪০/৫০ জন শ্রমিক নিয়ে প্রায় ৩’শ ফুট রাস্তা কেটে মাটির সাথে মিশিয়ে দেয়। পরবর্তীতে ওই রাতেই ট্রাক্টর দিয়ে চাষ করে ধান বীজ রোপন করা হয়।

 

প্রকৌশলী আবুল বাশার বলেন, বিষয়টি অমানবিক। তিনি রাতেই থানার ওসিকে বিষয়টি জানিয়েছেন।

বাকেরগঞ্জ থানার অফিসার্স ইনচার্জ  মো. আনোয়ার হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, ঘটনাটি উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের অবহিত করা হয়েছে। এ ব্যাপারে অভিযুক্ত মোকলেসুর রহমানের সাথে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্ঠা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।



সম্পাদনা: জপ / বরিশাল ডেস্ক


প্রকাশক: মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন তালুকদার    সম্পাদক: মো: জিয়াউল হক
সাঁজের মায়া (২য় তলা), হযরত কালুশাহ সড়ক, বরিশাল-৮২০০। ফোন : ০৪৩১-৬৪৫৪৪, মুঠেফোন : ০১৮২৮১৫২০৮০ ই-মেইল : hello@amaderbarisal.com
আমাদের বরিশাল ডটকম -এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।