AmaderBarisal.com Logo

ঝালকাঠিতে অপহরনের পর শিশু হত্যা, আটক-৩

ঝালকাঠি প্রতিনিধি
আমাদেরবরিশাল.কম

১ সেপ্টেম্বর ২০১৫ মঙ্গলবার ৮:১৭:১৪ অপরাহ্ন

ঝালকাঠিতে গিরস্তের এক দিনে চোরের ১০ বছরের জেলঝালকাঠি সদর উপজেলায় পারিবারিক শত্রুতার জেরধরে আট বছরের শিশুকে অপহরন করে হত্যা করে লাশ গুমের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এঘটনায় মঙ্গলবার সদর থানায় নিখোঁজ শাহজাদার মা রোসনেয়ারা বেগম বাদি হয়ে একটি মামলা করেছে। পুলিশ এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে তিন জনকে গ্রেফতার করেছে।

নিখোজ শাহাজাদা স্থানীয় একটি বিদ্যলয়ে ২য় শ্রেনীর শিক্ষার্থী ছিলো।

 

মামলার বিবরনে জানাযায়, সদর উপজেলার ভাওতিতা গ্রামের বজলুর রহমানের সাথে একই গ্রামের মোশারেফ হোসেন ও বাবুল হাওলাদারের পূর্ব বিরোধ চলছিল। গত ২৬ আগষ্ট মোশারেফের পুত্র বজলুর রহমানের অবুজ নাবালক শিশু শাহজাদাকে ডেকে নিয়ে নিয়ে যায়। এর পর থেকেই শাহাজাদা নিখোজ রয়েছে। আসামীদের কাছে জানতে চেয়েও শাহাজাদার কোন খোজ পাননি পরিবার।

এর পূর্বে নিখোজ শাহাজাদার পরিবার তাদের ছেলেকে এই আসামীরা আপহরন করেছে বলে মৌখিক অভিযোগ দিলে সদর থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) আ. সালাম ও এসআই গৌতম কুমার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে আসামী জাহিদ (২৫), বাবুল হাওলাদার (৪০) ও আশিক হাওলাদার (১৫)কে গ্রেফতার করে।

গ্রেফতার হওয়া জাহিদ এ প্রতিনিধিকে বলেন, সে শুধু নিখোজ শাহাজদাকে তার বাবা মোশারেফের কথামত ডেকে নিয়েছে। এরপর মোশারেফ শাহজাদাকে গলাটিপে হত্যা করেছে। কিন্তু এর পর তার মৃত দেহ কোথায় গুম করা হয়েছে তা সে জানেনা। তার বাবাকে গ্রেফতার করলেই তা পাওয়া যাবে।

ঝালকাঠি সদর থানার ওসি আ. সালাম জানান, অভিযোগের সুত্র ধরে তিন জনকে আটক করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদে আসামী জাহিদ নাবালক শাহজাদাকে অপহরনের পর তাকে মেরে ফেলার কথা স্বীকার করেছেন। তাই মামলার অন্য আসামীদের নামে ২০০০ (সংশোধিত ২০০৩) এর ৭/৩০ ধারায় ঝালকাঠি সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন নিখোজ শাহজাদার মা রোসনেয়ারা বেগম। আটকের পর ভাওতিতা গ্রামে ঘটনাস্থলে বিলের পানির মধ্যে গিয়ে বিভিন্ন স্থানে তল্লাশী করা হলেও কোথাও মৃত দেহ পাওয়া যায়নি।



সম্পাদনা: জপ / বরিশাল ডেস্ক


প্রকাশক: মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন তালুকদার    সম্পাদক: মো: জিয়াউল হক
সাঁজের মায়া (২য় তলা), হযরত কালুশাহ সড়ক, বরিশাল-৮২০০। ফোন : ০৪৩১-৬৪৫৪৪, মুঠেফোন : ০১৮২৮১৫২০৮০ ই-মেইল : [email protected]
আমাদের বরিশাল ডটকম -এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।