AmaderBarisal.com Logo

বিএনপি-জামায়াতের দাবী মেনে নিলে কোন দল গনতন্ত্র চর্চা করতো না- শিল্পমন্ত্রী আমু

নিজস্ব প্রতিবেদক
আমাদেরবরিশাল.কম

৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫ শুক্রবার ৫:৫১:২০ অপরাহ্ন

বিএনপি-জামায়াতের দাবী মেনে নিলে কেন দল গনতন্ত্র চর্চা করতো না- শিল্পমন্ত্রী আমুশিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু এমপি বলেছেন, চলতি বছর বিএনপি-জামায়াত জোটের কথিত আন্দোলনের সময়ে সরকার যদি বিরোধীদের কর্মকান্ডকে বিন্দুমাত্র ছাড় দিয়ে তাদের দাবী মেনে নিত, তাহলে এই দেশে কোন রাজনৈতিক দল ভবিষ্যতে গনতন্ত্র চর্চা করতো না, প্রত্যেকটি দল সন্ত্রাসী লালন করতো, পেট্রল বোমার আশ্রয় নিয়ে দাবী আদায়ে বাধ্য করতো।

 

শুক্রবার দুপুরে নগরীর নথুল্লাবাদে বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের বরিশাল আঞ্চলিক মানবাধিকার সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন শিল্পমন্ত্রী আমু।

সংগঠনের আঞ্চলিক সভাপতি মাহমুদুল হক খানের সভাপতিত্বে সম্মেলনে প্রধান অতিথি আরো বলেন, মানুষ হত্যা করে যারা গনতান্ত্রিক অধিকার চায়, সেই গনতন্ত্র আওয়ামী লীগ দিতে পারেনা। তাহলে মানুষ হত্যা প্রধান্য পাবে, মানুষ হত্যা স্থায়িত্ব লাভ করবে। এটা প্রত্যেকটি মানবাধিকার কর্মীকে উপলব্ধি করতে হবে।

শিল্প মন্ত্রী আরো বলেন, যারা গনতন্ত্রের নামে রাজনীতির নামে মানুষ হত্যা করে, যারা এই দেশের উন্নয়ন প্রক্রিয়াকে ব্যাঘাত সৃস্টি করে পাকিস্তানের মতো একটা অকার্যকর রাস্ট্রে পরিনত করতে চায়, তাদের অবশ্যই জনগন থেকে বিচ্ছিন্ন করতে হবে, জনগনের মাধ্যমে প্রতিহত করতে হবে।

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশে মানবাধিকার শব্ধটি ব্যবহৃত হয় শুধুমাত্র সরকারের বিরুদ্ধে কথা বলার জন্য। যেটা বাস্তব সন্মত নয়। মানবাধিকার বলতে শুধুমাত্র আইন শৃঙ্খলা বুঝায় না। একটি মানুষের দৈনন্দিন অধিকারই হচ্ছে মানবাধিকার। সংবিধানে আছে অন্ন, বস্ত্র, বাসস্থান, শিক্ষা ও চিকিৎসা- প্রত্যেকটি বিষয়ের নিরাপত্তা বিধানই মানবাধিকার। সরকারের দায়িত্ব মানুষ যাতে এই অধিকার থেকে বঞ্চিত না হয়।

আমু বলেন, এই দেশের কিছু শিক্ষিত জ্ঞানপাপী মানুষ জনগনের বিরুদ্ধে কথা বলে। যারা হত্যাকে হত্যা বলতে সাহস পায়না। মানবাধিকার লংঘনকে মানবাধিকার লংঘন বলতে সাহস পায়না কিংবা বলেনা। তারা জ্ঞানপাপী হিসেবে চিহ্নিত। খালেদা জিয়া বিগত নির্বাচনের সময় কিভাবে মানুষ পুড়িয়ে মেরেছিল। সাতক্ষ্মীরায় গ্রামের পর গ্রাম পুড়িয়ে দিয়েছিল। ১৮জন পুলিশ হত্যা করেছিল। চলতি বছর খালেদা জিয়া ৯৩ দিন বাসের মধ্যে ঘুমন্ত শিশুকে পেট্রল বোমা মেরে হত্যা করেছিল। কিন্তু এই দেশের মানবাধিকার কমিশনের দাবীদাররা, এসব ঘটনার নিন্দা পর্যন্ত জানায়নি। তারা (জ্ঞানপাপী) তাদের যৌক্তিকতা তুলে ধরেছিলো। নির্বাচনের দাবী তুলেছিলো।

সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বরিশাল সদর আসনের এমপি জেবুন্নেছা আফরোজ। অন্যান্যের মধ্যে বিভাগীয় কমিশনার মো. গাউস, জেলা প্রশাসক ড. গাজী মো. সাইফুজ্জামান, অতিরিক্ত ডিআইজি আকরাম হোসেন, মেট্রো পুলিশের উপ-কমিশনার (সদর) সোয়েব আহাম্মাদ, ঢাকা সিটি করপোরেশনের ৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর কাজী জহিরুল হক মানিক প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।



সম্পাদনা: জপ / বরিশাল ডেস্ক


প্রকাশক: মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন তালুকদার    সম্পাদক: মো: জিয়াউল হক
সাঁজের মায়া (২য় তলা), হযরত কালুশাহ সড়ক, বরিশাল-৮২০০। ফোন : ০৪৩১-৬৪৫৪৪, মুঠেফোন : ০১৮২৮১৫২০৮০ ই-মেইল : [email protected]
আমাদের বরিশাল ডটকম -এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।